• বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭
কুড়িগ্রামে বাড়ছে শীতের দাপট

ছবি: বাংলাদেশের খবর

আবহাওয়া

কুড়িগ্রামে বাড়ছে শীতের দাপট

  • কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৭ ডিসেম্বর ২০২০

উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামে বাড়ছে শীতের দাপট। সারাদিনেও মিলছে না সূর্যের দেখা। নভেম্বরের শুরুতে এ জেলায় আগাম শীত দেখা দিলেও, ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই এই জেলায় তাপমাত্রা উঠানামা করছে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। সোমবার সকাল ৬টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল সন্ধ্যায় তাপমাত্রা কমার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে শীতের দাপট। এই দাপট আজও রয়েছে। এই কুয়াশার সাথে বইছে হিমেল হাওয়া।

জেলার রাজারহাট উপজেলার কৃষি আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, লঘু চাপের প্রভাবে হালকা ও শুষ্ক আবহাওয়ায় রাতের তাপমাত্রা কমে শীতের অনুভূতি বাড়ার সঙ্গে মধ্যরাত থেকে কুয়াশারও দেখা মিলবে। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, নভেম্বর মাসের শেষদিকে আবহাওয়ায় ঠান্ডা ভাব বিরাজ করে। উত্তরের হাওয়া না বইলেও ঝিরঝির বৃষ্টি শীতের অনুভূতি বাড়িয়ে দেয়। হেমন্তে সন্ধ্যা-রাত-ভোরে কুয়াশা থাকা বা হালকা বৃষ্টি অস্বাভাবিক কিছু নয়। ঝিরঝির বৃষ্টির প্রবণতা কমে এলেও আগামী তিন দিন রাতের তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে কমতে পারে। ডিসেম্বরের শেষার্ধে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে আভাস রয়েছে। এদিকে শীতের দাপট বাড়ায় বিপাকে পড়েছে শিশু, বৃদ্ধ এবং খেটে খাওয়া মানুষ। শীতের প্রকোপ আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কায় রয়েছেন তারা ।

শহর তলির ভাপা পিঠা বিক্রেতা মহির উদ্দিন জানান, শীত বাড়ার সাথে আমার ব্যবসা চাঙ্গা হয়েছে। প্রতিদিন ৪/৫ টাকার ভাপা পিঠা বিক্রি করে সংসার চালাই। আমি চাই শীত আরও বাড়ুক।

অপরদিকে, চা দোকানি মাহমুদ জানান, শীতের কারণে সকালে কাস্টমার না পেলেও সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে চায়ের কাটতি বেশি। সারা বছর যদি এরকম থাকতো খুব ভালো হতো।

শীতের প্রকোপ বাড়ার সাথেও বেড়েছে শীতের কাপড়ের দোকানগুলোতে। জেলা শহরের নছর উদ্দিন মার্কেটে পুরাতন কাপড়ের দোকানে দেখা গেছে উপচে পড়া ভিড়। সব মিলিয়ে শীতের দাপটে কুড়িগ্রামের মানুষ অনেকটাই পড়েছে বেকায়দায়। শীত নিবারণে সাধ্যের মধ্যে কিনছে শীতের পোষাক।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads