• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
আফগানিস্তানে সেনা-তালেবান সংঘর্ষে নিহত ৫৪

ছবি : সংগৃহীত

বিদেশ

আফগানিস্তানে সেনা-তালেবান সংঘর্ষে নিহত ৫৪

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় কুন্দুজ শহরের একাধিক স্থানে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সশস্ত্র বিদ্রোহী সংগঠন তালেবান যোদ্ধাদের ব্যাপক সংঘর্ষে ঘটেছে। এতে অন্তত ৩৮ তালেবান জঙ্গি, নিরাপত্তা বাহিনীর ১০ সদস্য ও ছয় বেসামরিক ব্যক্তির মৃত্যুর খবর প্রচার করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।

গতকাল রোববার হামলার সর্বশেষ তথ্য নিশ্চিত করে আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফাওয়াদ আমান মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনকে বলেছেন, শুক্রবার স্থানীয় সময় দিনগত রাত দেড়টা থেকে উত্তরাঞ্চলীয় শহরটির একাধিক এলাকায় দুপক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ শুরু হয়। মূলত এতেই এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

আফগান মন্ত্রণালয়ের এ মুখপাত্র আরো বলেন, প্রথমে তালেবান যোদ্ধারাই হামলাটি শুরু করে। পরে আফগান নিরাপত্তা বাহিনী পাল্টা হামলার মাধ্যমে এর যথাযথ জবাব দেয়। এখনো থেমে থেমে সংঘর্ষ অব্যাহত আছে।

তিনি বলেন, আমরা জানতে পেরেছি এখন পর্যন্ত অন্তত ১০ তালেবান যোদ্ধা আহত হয়েছেন। তাছাড়া বাহিনীর আরো কমপক্ষে ৩২ সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন।

এদিকে তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ এক টুইট বার্তায় হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আমাদের যোদ্ধারা এখন পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনীর অন্তত ১০ সদস্যকে হত্যা করেছে।

অন্যদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির মুখপাত্র সেদিক সেদ্দিকি অন্য এক টুইট পোস্টে বলেছেন, আফগান জনগণের সুরক্ষাই একমাত্র আমাদের প্রধান লক্ষ্য। আর সেদিকেই এখন আমরা দৃঢ়ভাবে এগিয়ে যাচ্ছি।

কুন্দুজ প্রদেশের আইনপ্রণেতা ফাতিমা আজিজ সিএনএনকে বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে সৃষ্ট সংঘর্ষের ফলে বর্তমানে শহরটির বিদ্যুৎ, পানি ও টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা পুরোপুরি বন্ধ আছে। যদিও বেশকিছু বেসামরিক জীবন বাঁচাতে এরই মধ্যে পাশের জেলাগুলোতে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন।

আফগান প্রাদেশিক এই আইনপ্রণেতা আরো বলেছেন, এবারের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে একাধিক বেসামরিক হতাহত হয়েছেন; তবে ঠিক কতজন নিহত কিংবা আহত হয়েছেন তা এখনো জানা যায়নি। যদিও হামলায় টিকতে না পেরে এরই মধ্যে বেশ কিছু তালেবান যোদ্ধা শহরটির প্রধান হাসপাতাল ও স্থানীয় বেসামরিকদের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে।

এছাড়া প্রদেশটির সরকারি স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান এহসানুল্লাহ ফজলি ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, দীর্ঘক্ষণ যাবৎ চলা উভয় পক্ষের এই সংঘর্ষে আমরা এখন পর্যন্ত তিন বেসামরিক নিহতের খবর পেয়েছি। তাছাড়া ৪১ জন আহতকে শহরের একাধিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads