• বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫
ads

কোটা সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে চাকরিপ্রত্যাশীদের বিক্ষোভ

ফাইল ফটো

বাংলাদেশ

সরকারের আশ্বাসে স্থগিত কোটা সংস্কারের আন্দোলন

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৯ এপ্রিল ২০১৮

সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটাব্যবস্থার বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে- সরকারের এমন আশ্বাসে কোটা সংস্কারের চলমান আন্দোলন আগামী ৭ মে পর্যন্ত স্থগিত করেছেন আন্দোলনকারীরা। 

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে সরকারের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সোমবার বিকেলে প্রায় দুই ঘণ্টা বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত নেন আন্দোলনকারীরা। 

বৈঠকের সিদ্ধান্ত সাংবাদিকদের অবহিত করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আন্দোলনকারীদের সঙ্গে তাদের অত্যন্ত সুন্দর আলোচনা হয়েছে। আমরা তাদের বলেছি, ৭ মের মধ্যে সরকার বিদ্যমান কোটার বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে। সে পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত থাকবে।’

তিনি আরো জানান, আন্দোলনের সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাড়িতে যারা ভাঙচুর করেছে এবং আন্দোলনে সহিংসতা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে। কোনো নিরীহ শিক্ষার্থী বা আন্দোলনকারী যেন হয়রানির শিকার না হন, সেদিকে লক্ষ রাখতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকে বলা হয়েছে।

কাদের বলেন, আন্দোলেনর সময়ে যেভাবেই আহত হয়ে থাকুক না কেন, তাদের চিকিৎসা সহায়তা দেবে সরকার। সোমবার বিকেল সাড়ে চারটায় আন্দোলনকারী ১৯ জনের সঙ্গে সচিবালয়ে বৈঠকে বসেন ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রতিনিধিদল। বিদ্যমান কোটার সংস্কার চেয়ে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ এ দফায় ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে আন্দোলন করে আসছে। রোববার তাদের পদযাত্রা ও অবস্থা কর্মসূচি চলাকালে ঢাকায় পুলিশ বাধা দিলে সহিংস পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশ লাঠিপেটা, কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads