• বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

শাহবাগে কোট সংস্কার আন্দোলনকারীদের অবস্থান

পুরোনো ছবি

বাংলাদেশ

কোটা সংস্কার আন্দোলন

তিন নেতাকে ‘ডেকে আলোচনা’ পুলিশের

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৬ এপ্রিল ২০১৮

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী তিন নেতাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, তাদের ডেকে দুই ঘণ্টা আলোচনার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

আন্দোলনকারীরা সোমবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ক্যাম্পাসে সংঘর্ষ ও উপাচর্যের বাসভবনে হামলার ঘটনায় দায়ের করা সব মামলা দুই দিনের মধ্যে প্রত্যাহার না করলে তারা আবার রাজপথে নামবেন। এর পরই পরিষদের নেতারা ঢামেক হাসপাতালে যান আন্দোলনের বিভিন্ন সময়ে হামলায় অসুস্থ নেতাকর্মীদের দেখতে। সেখান থেকে বেরিয়ে আসার পথেই তিন নেতাকে তুলে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে। 

তবে দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের সামনে থেকে সাদা পোশাকে মাইক্রোবাসে করে কোটা সংস্কার আন্দোলনের তিন নেতাকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

ওই তিনজন হলেন আন্দোলনকারী সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র নুরুল্লাহ নূর, এমবিএর (ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগ) ছাত্র রাশেদ খান এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র ফারুক হোসেন। 

সোমবার দুপুরে ওই তিন নেতাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় বলে দাবি করেন সংগঠনটির সমন্বয়ক হাসান আল মামুন। তিনি বলেন, ’পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নূর, ফারুক হাসান ও রাশেদ খানকে সাদা পোশাকের পুলিশ একটি মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে গেছে।’ 

অবশ্য ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, তিনজনকে তুলে নেওয়া হয়নি। তাঁদের আলোচনার জন্য ডাকা হয়েছে। 

বেলা পৌনে তিনটায় রাশেদের মোবাইল ফোন করে জানা যায়, তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনে থেকে তুলে নেওয়া হয়। পরে আড়াইটার দিকে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads