• মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads

বিপিএল

ফাইনালে রংপুর না কুমিল্লা?

এলিমিনেটরে টিকে থাকার লড়াইয়ে ঢাকা ও চিটাগং

  • স্পোর্টস রিপোর্টার
  • প্রকাশিত ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) গতবারের চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স প্রথম দিকে হতাশা ছড়ালেও লিগ পর্বের শেষ দিকে দারুণ খেলে পয়েন্টে শীর্ষস্থান লাভ করে। তারা প্রথম কোয়ালিফায়ারে উঠে যায়। লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে রংপুরের কাছে হেরে গেলেও পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় স্থান নিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স তাদের পাশাপাশি প্রথম কোয়ালিফায়ারে জায়গা করে নেয়। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রংপুর ও কুমিল্লা পরস্পরের মোকাবেলা করবে। বিজয়ী দল সরাসরি চলে যাবে ৮ ফেব্রুয়ারির ফাইনালে। 

এর আগে আজ দুপুর দেড়টায় একই ভেন্যুতে এলিমিনেটরে মুখোমুখি হবে পয়েন্ট তালিকায় তিনে থাকা চিটাগং ভাইকিংস ও চারে থাকা ঢাকা ডায়নামাইটস দল। এই ম্যাচের পরাজিত দলটি এবারের বিপিএল থেকে বিদায় নেবে। আর বিজয়ী দলটি দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে উঠে যাবে। সেখানে তারা ফাইনালে ওঠার জন্য খেলবে প্রথম কোয়ালিফায়ারে পরাজিত হওয়া দলটির বিপক্ষে। ওই দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে মিরপুরে আগামী বুধবার। ১২ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ পর্বে এক নম্বর দল হিসেবে শেষ চার নিশ্চিত করে মাশরাফি বিন মর্তুজার রংপুর  (নেট রানরেট ১.০১৮)। ইমরুল কায়েসের কুমিল্লাও (নেট রানরেট ০.০৬৬) ১৬ পয়েন্ট পেয়েছে। তবে তারা নেট রানরেটে কিছুটা পিছিয়ে থাকায় দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ চারে খেলছে। ১২টি করে ম্যাচ শেষে মুশফিকুর রহিমের চিটাগং ১৪, সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডায়নামাইটস ১২, মেহেদী হাসান মিরাজের রাজশাহী কিংস ১২, অলক কাপালির সিলেট সিক্সার্স ১০ এবং মাহমুদউল্লাহর খুলনা টাইটানস ৪ পয়েন্ট লাভ করেছে। সবচেয়ে বাজে করেছে খুলনা। রাজশাহী তো পয়েন্টে ঢাকার সমান হয়েও নেট রানরেটে পিছিয়ে থেকে শেষ চারে উঠতে পারেনি। আর সিলেট লিগ পর্বের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত শেষ চারের আশা জিইয়ে রেখেছিল। কিন্তু ভাগ্য ভালো না থাকায় তাদের বিদায় নিতে হয়েছে।

আজ রংপুর ও কুমিল্লার চলতি বিপিএলে তৃতীয় দফা লড়াই। আগের দু’বারই জিতেছে রংপুর। শুধু জিতেছে বললে সঠিক বলা হবে না। রংপুর দু’বারই জিতেছে অত্যন্ত সহজ ব্যবধানে। অন্য দলের সঙ্গে যতই শক্তিমত্তার পরিচয় দিক, রংপুর সামনে এলেই চুপসে যায় কুমিল্লা। গতবারের চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের সঙ্গে ৮ জানুয়ারির প্রথম দফায় সাক্ষাতে ১৬.২ ওভারে মাত্র ৬৩ রানে অলআউট হয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। আর ম্যাচে রংপুর (১২ ওভার, ৬৭/১) জিতেছিল ৯ উইকেটের সহজ ব্যবধানে। গত শনিবার দ্বিতীয় দফা ম্যাচেও প্রায় একই অবস্থা হয় কুমিল্লার। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে লিগ পর্বের ওই ম্যাচে কুমিল্লা ১৬.৩ ওভারে মাত্র ৭২ রানে অলআউট হয়। সামান্য ওই স্কোর টপকাতে কোনো ধরনের বেগ পেতে হয়নি মাশরাফিকে। মাত্র ৯.৩ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ৭৬ রান তোলে রংপুর। প্রথম দফার মতোই সহজেই ৯ উইকেটের জয় পায় রংপুর।

রংপুরের জন্য দুটি দুঃসংবাদ রয়েছে। তা হলো ইংলিশ ওপেনার অ্যালেক্স হেলস ও প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্সের চলে যাওয়া। রংপুরের ব্যাটিংলাইনের এই দুই স্তম্ভকে ছাড়াই তাদেরকে শেষ চারের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে লড়াই করতে হবে। তবে মাশরাফির নেতৃত্বে ক্যারিবিয়ান ব্যাটিংদানব ক্রিস গেইল, ইংলিশ ব্যাটসম্যান হাওয়েল ও অলরাউন্ডার রবি বোপারা, প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান রিলে রুশোর সঙ্গে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা ঠিকমতো জ্বলে উঠতে পারলে রংপুরের ফের শিরোপা লাভের সম্ভাবনা থাকবে।

কুমিল্লা দলে রয়েছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডার পাকিস্তানের শহীদ আফ্রিদি। আরো রয়েছেন ইংলিশ অলরাউন্ডার লিয়াম ডসন, লঙ্কান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা, পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার ওহাব রিয়াজ ও আফগান মিডিয়াম পেস বোলার ওয়াকার সালামখের। আর তাদের সঙ্গে রয়েছেন বাংলাদেশের তারকা ওপেনার তামিম ইকবালসহ বেশ কয়েকজন কার্যকর খেলোয়াড়। ঠিকমতো জ্বলে উঠতে পারলে তারাও কুমিল্লার জন্য শিরোপা এনে দিতে সক্ষম। 

ঢাকা ও চিটাগংয়ের মধ্যকার এলিমিনেটর ম্যাচটি হবে অন্য হিসাবে বেশ আকর্ষণীয়। কারণ, সাকিবের ঢাকা ও মুশফিকের চিটাগংয়ের মধ্যে যারা হারবে তারাই বিদায় নেবে। কোনো দলই বিদায় নিতে চাইবে না। ফলে পুরো শক্তি দিয়ে লড়বে তারা আজ পরস্পরের বিরুদ্ধে। মুশফিকের চিটাগংয়ে রয়েছেন প্রোটিয়া অলরাউন্ডার ডেলপোর্ট, আফগান ওপেনার শাহজাদ, লঙ্কান অলরাউন্ডার দাসুন সানাকা, জিম্বাবুইয়ান অলরাউন্ডার সিকান্দার রাজাসহ বাংলাদেশের মোসাদ্দেক ও ইয়াসির আলীর মতো যোগ্য ক্রিকেটার।

সাকিবের ঢাকা দলে রয়েছেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার সুনিল নারিন, বিগ হিটার পোলার্ড, অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল ও প্রোটিয়া পেসার আন্দ্রে বার্চ। আরো রয়েছেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান রনি তালুকদার ও পেসার রুবেল হোসেন। ঢাকা ও চিটাগংয়ের মধ্যে কারা টিকে থাকে সেটাই আজ দেখার পালা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads