• শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
আত্মবিশ্বাসী ইমরুল

শিরোপা জিততে মুখিয়ে আছেন কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল কায়েস

ছবি : ইন্টারনেট

বিপিএল

আত্মবিশ্বাসী ইমরুল

  • স্পোর্টস রিপোর্টার
  • প্রকাশিত ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

শিরোপা জয়ের মঞ্চ। আগাম রোমাঞ্চ ভর করছে অধিনায়ক ইমরুল কায়েসের মধ্যে। শিরোপাটা জিততে পারলে পূর্ণ হবে কাঙ্ক্ষিত স্বপ্ন। প্রতিপক্ষ ঢাকা ডায়নামাইটস এই মুহূর্তে বেশ ভয়ঙ্কর। রংপুরকে হারিয়ে ফাইনালের টিকেট কাটা ঢাকাকে হারাতে পারবে তো ইমরুলের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স? সে প্রশ্ন আপাতত তোলা থাক। যার ফয়সালা হবে আজ সন্ধ্যায়।

কিন্তু তার আগে ফাইনালে নিজ দল কুমিল্লাকে নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী ক্যাপ্টেন ইমরুল কায়েস। আর সেটা লিগ পর্বের দুই ম্যাচের হিসাব-নিকাশের বিচারে। লিগ পর্বের দুটি ম্যাচেই কুমিল্লার কাছে হেরেছিল সাকিবের ঢাকা ডায়নামাইটস। এমন সুখস্মৃতি কুমিল্লার জন্য বাড়তি পাওয়া। তবে ফাইনালের মঞ্চ ভিন্ন। নির্দিষ্ট দিনে যারা ভালো খেলবে, শিরোপায় চুমু খাবে তারাই।

ফাইনালের আগের দিন অর্থাৎ গতকাল বৃহস্পতিবার শুধু অনুশীলন করেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। বুধবার ম্যাচ থাকায় এদিন বিশ্রামে ছিল সাকিব ব্রিগেড। অনুশীলন শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল কায়েস।

ফাইনালে কোন দল এগিয়ে- এমন প্রসঙ্গে ইমরুল বলেন, ‘এগিয়ে থাকার দিক থেকে এটাই বলতে পারেন যে, আমরা দুটি ম্যাচে ওদের বিপক্ষে জিতেছি। আত্মবিশ্বাসের দিক থেকে আমরা ভালো অবস্থানে আছি। কারণ, একটি দলকে দুইবার যখন হারাবেন তখন আল্টিমেটলি প্রতিপক্ষ দল কিন্তু আমাদের নিয়ে আমাদের চেয়ে তখন বেশি চিন্তা করবে। এটাই আমার কাছে মনে হয় একটি ইতিবাচক দিক।’

কিন্তু এটা ফাইনাল। লিগ পর্বের ম্যাচ। নতুন ছক আঁটবে প্রতিপক্ষ। তবে ইমরুলের কথায় মনে হলো ঢাকা বধে তাদের বাড়তি পরিকল্পনার প্রয়োজন হচ্ছে না। যদিও বিশ্বমানের চার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, আন্দ্রে রাসেল, সুনিল নারিন ও কাইরন পোলার্ড দলে আছেন। তবুও নির্ভার কোচ মোহাম্মদ সালাহউদ্দিনের শিষ্যরা। আর এই ক্ষেত্রে তাকে আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে তামিম ইকবাল, এভিন লুইস, শামসুর রহমান শুভ, থিসারা পেরেরা, শহীদ আফ্রিদি, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ও মেহেদি হাসানকে নিয়ে গড়া লাইনআপ।

ইমরুল বলেন, ‘আমরা তাদের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ খেলেছি। আর এই দুই ম্যাচে কিন্তু চারটি অলরাউন্ডারই খেলিয়েছিল তারা। আমাদের কাছে এই দুই ম্যাচেই হেরেছে তারা। সুতরাং আমরা অতিরিক্ত কোনো পরিকল্পনা বা চিন্তা করছি না। মাঠে গেলে পরিস্থিতি কী হয়, সেই পরিস্থিতিই বলে দেয় যে কীভাবে ফেস করতে হবে বা হ্যান্ডেল করতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের দলে অনেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার আছে। শহীদ আফ্রিদি আছে, সে অনেক ক্রিকেট খেলেছে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। আপনারা জানেন যে, সে প্রথম থেকেই ভালো বোলিং করে আসছে। আমি আশা করি সে কালকেও (আজ) তেমন একটি ভালো পারফরম্যান্স উপহার দেবে। আমরা আমাদের স্ট্রেন্থ অনুযায়ী ঠিকমতো এক্সিকিউট করতে পারলে ইনশাল্লাহ একটি ফলাফল আসার সম্ভাবনা আছে।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads