• বুধবার, ৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads

বিপিএল

বিপিএলে গেইলকে নিয়ে জটিলতা

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৮ নভেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) মানেই নানা ধরনের বিতর্ক। এবার বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষভাবে আয়োজনের শুরুতেও বিতর্ক উঠেছে। আর সে বিতর্কের নাম ক্রিস গেইল। বিশ্ব ক্রিকেটের এ দানবীয় ক্রিকেটার জানেনই না কীভাবে তার নাম বিপিএলে এলো। তাকে না জানিয়েই বিপিএল কর্তারা এসব করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন এ ক্যারিবিয়ান দৈত্য। এমন সংবাদই প্রকাশ করেছে ক্রিকেটভিত্তিক জনপ্রিয় ওয়েবপোর্টাল ইএসপিএন ক্রিকইনফো। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে পরিচালক ও চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স দলের টিম ডিরেক্টর জালাল ইউনুস এবং প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন গেইলের কথায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, গেইলের সায় ছাড়া এমন কাজ হয়নি। সবমিলে বিপিএলে গেইলকে নিয়ে নতুন এক জটিলতা সৃষ্টি হলো।

সাম্প্রতিক সময়টা ভালো যাচ্ছে না গেইলের। দক্ষিণ আফ্রিকার এমজানসি সুপার লিগে এবার চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। তার দল জোজি স্টার্সেরও হয়েছে ভরাডুবি। তাই আপাতত ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। চলতি বছরে আর মাঠে নামবেন বলেই জানিয়েছেন এ ক্যারিবিয়ান। আগামী ডিসেম্বরে ভারত সফর করবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সে সফরের জন্য তাকে ডেকেছিল সংশ্লিষ্ট বোর্ডটি। কিন্তু তাতে সাড়া দেননি গেইল, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজ আমাকে ডেকেছিল ওয়ানডে খেলার জন্য। কিন্তু আমি খেলতে যাচ্ছি না। তারা (নির্বাচক) চায় যেন আমি তরুণদের সঙ্গে খেলি কিন্তু এ বছরটা আমি বিশ্রাম নিতে চাই।’ গেইল বলেন, ‘আমি বিগব্যাশও খেলতে যাচ্ছি না। আমি ঠিক জানি না সামনে কী ক্রিকেট আসছে। এমনকি আমি এটাও জানি না, কীভাবে আমার নাম বিপিএলে এলো। কিন্তু আমি ড্রাফটে একটা দলে আছি জানি না এটা কীভাবে হলো।’

অথচ লটারিতে প্রথমে খেলোয়াড় নেওয়ার সুযোগ পেয়ে শুরুতেই গেইলকে লুফে নিয়েছিল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। তাকে নিয়ে অন্যরকম পরিকল্পনা সাজিয়েছিল দলটি। তাই নিজেদের বড় ক্ষতি হয়ে গেছে বলেই জানালেন জালাল ইউনুস, ‘প্রথম সুযোগেই গেইলকে নিয়েছি আমরা। তাকে ঘিরেই সব পরিকল্পনা। সে না এলে তো বড় বিপদে পড়ব আমরা। তার নাম না থাকলে থিসারা পেরেরা বা অন্য কাউকে নিতে পারতাম। এখন তার বদলে ভালো কোনো রিপ্লেসমেন্ট পাব না।’ এটা নিয়ে বিপিএল গভর্নিং কমিটিকে অ্যাকশনে যেতে বললেন জালাল ইউনুস, ‘তার নাম তো অবশ্যই এজেন্টের সঙ্গে কথা বলেই এসেছে। এখন বিপিএল গভর্নিং কমিটির এটা নিয়ে অ্যাকশনে যাওয়া উচিত। সে যদি নাই খেলে তাহলে কেন তার নাম লিস্টে দিল?’

নিজামউদ্দিন সুজন বলেন, ‘প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগে খেলোয়াড়দের সঙ্গে আমরা একটা নিয়ম মেনেই তালিকায় নাম দিই। গেইলের ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। তার এজেন্ট আমাদের যে ডকুমেন্ট দিয়েছে তাতে গেইলের স্বাক্ষর রয়েছে। আপনি যখন আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন এরপর আমি ডকুমেন্ট যাচাই করে দেখেছি।’

দর্শকরা কিন্তু গেইলের খেলা দেখতে ভীষণ আগ্রহী। বিশ্ব টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম সেরা তারকা গেইল না থাকলে বিপিএলের আকর্ষণ অনেকটাই কমে যাবে বলে আশঙ্কা থেকে যাবে। অন্য দেশের মতো বাংলাদেশে গেইলের আলাদা জনপ্রিয়তা রয়েছে। তিনি যে দলের হয়েই খেলুন, দর্শকরা তার চার-ছক্কা দেখার জন্য মুখিয়ে থাকে। বিসিবি কিংবা বিপিএল কর্তৃপক্ষ কী করেছে, আদৌ গেইলের ভুল হয়েছে কি না, নাকি মাঝখানে কেউ অতি উৎসাহী হয়ে গেইলকে বিপদে ফেলেছে, সেসব জানতে চায় না দর্শকরা। তারা চায় গেইলকে। তাই বিষয়টির সুরাহা করা জরুরি। তবে গেইলকে রাজি করানোর একটা চেষ্টা থাকা দরকার বিসিবির। 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads