• শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১০ মাঘ ১৪২৬
সাবেক অধিনায়কদের অবজ্ঞা বিপিএলে

ফাইল ছবি

বিপিএল

সাবেক অধিনায়কদের অবজ্ঞা বিপিএলে

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

এটা কীভাবে হলো, তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করে আয়োজিত এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। যার নামই রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু বিপিএল। এ আসরের মাঠের খেলা শুরুর তিনদিন আগে গতকাল রোববার মিরপুরের শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে হলো জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। সেখানে দাওয়াত করা হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক কোনো অধিনায়ক কিংবা তারকা খেলোয়াড়দের।

বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বসে দেশি-বিদেশি তারকাদের মেলা। দুই পর্বে মঞ্চ মাতান দেশি ও বিদেশি তারকারা। সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিপিএলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে-পরে ছিল মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক বিষয়।

খুব পরিতাপের বিষয় হলো, এ অনুষ্ঠানের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে দাওয়াত দেওয়া হয়নি দেশের সাবেক কোনো ক্রিকেট তারকাকে। সাবেক অধিনায়করা দাওয়াত না পেলেও, ক্রিকেট বোর্ডের সকল সদস্য ও কাউন্সিলররা ঠিকই আমন্ত্রণপত্র পান। অনেককেই আবার দেওয়া হয়েছে সৌজন্য টিকিট। কিন্তু সাবেক খেলোয়াড় বা অধিনায়কদের জন্য নেওয়া হয়নি কোনো পদক্ষেপ। এতে হতাশা প্রকাশ করেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত, কৃতী উইকেটকিপার শফিকুল হক হীরা। আয়োজকদের এমন খামখেয়ালিপূর্ণ আচরণ মেনে নিতে কষ্টই হচ্ছে তার। শফিকুল হক হীরা শুধু ক্রিকেটার হিসেবেই নন, জাতীয় দলের ম্যানেজার হিসেবেও ছিলেন অন্যতম সফল। তিনি বলেন, ‘ এটা দেখে অবাক হলাম যে, বিপিএলের এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্য অধিনায়কদের দাওয়াত দেয়া হয়নি। অথচ বোর্ড মেম্বার, কাউন্সিলররা ঠিকই আমন্ত্রণ পেয়েছে। এটা খুবই দুঃখের যে সাবেক অধিনায়কদের চেয়ে বোর্ড কাউন্সিলরদের গুরুত্ব বেশি।’ তিনি আরো বলেন, ‘জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক এবং জাতীয় পুরস্কার বিজয়ীর জন্য এটা অপমানজনক। বিসিবি কারো সাথে যোগাযোগই করেনি। দেশের জন্য সুনাম অর্জনের লক্ষ্যে আমরা ক্রিকেট খেলেছিলাম, বোর্ড মেম্বার বা কাউন্সিলররা নয়। অথচ এর বিপরীতে আমরা এমন প্রতিদান পাচ্ছি। ক্রীড়া মন্ত্রণালয় হয়তো এ বিষয়ে কিছু জানেও না। এটা সত্যিই অপমানজনক।’ হিরা সেই খেলোয়াড়দের একজন, যাদের হাত ধরে ক্রিকেটে আজকের বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশ এখন নিয়মিত টেস্ট খেলছে, ওয়ানডে খেলছে, টি-টোয়েন্টি খেলছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর হিরা, রকিবুল হাসান, শামীম কবির, দীপু রায় চৌধুরী, জাহাঙ্গীর শাহ বাদশাহ,  দৌলতুজ্জামানরাই প্রথম ক্রিকেট চর্চা শুরু করেন। তাদের অবদান স্বীকার করা বা তাদেরকে শ্রদ্ধা করা ছিল খুবই জরুরী। কিন্তু বর্তমান ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারা সেটা করতে পারলেন না।    

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads