• সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৫
ads
 পদ্মা সেতুর দেড় কিলোমিটার দৃশ্যমান

পদ্মা সেতু

সংরক্ষিত ছবি

যোগাযোগ

পদ্মা সেতুর দেড় কিলোমিটার দৃশ্যমান

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১০ এপ্রিল ২০১৯

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতুর দশম স্প্যান বসানো হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর দেড়-কিলোমিটার দৃশ্যমান হয়েছে।

আজ বুধবার দুপুরে পৌনে ১ টার দিকে সেতুর ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারের ওপর এ স্প্যান বসানো হয়। এর আগে জাজিরা প্রান্তে আটটি ও মাওয়া প্রান্তে একটি স্প্যান বসানো হয়।পদ্মা সেতু প্রকল্পের হকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মোট নয়টি স্প্যান বসানো হয়। এর মধ্যে জাজিরা প্রান্তে আটটি ও মাওয়া প্রান্তে একটি স্প্যান বসানো হয়। এদের মধ্যে জাজিরা প্রান্তে ৩৪, ৩৫, ৩৬, ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১, ৪২ খুঁটিতে আটটি ও মাওয়া প্রান্তে ৫ ও ৬ নম্বর খুঁটি একটি স্প্যান বসানো হয়েছে। অন্যদিকে জাজিরা প্রান্তে রেলওয়ে বক্স বসানোর কাজ চলছে। বসানো শুরু হয়েছে রোডওয়ে স্ল্যাব। একটি স্প্যানে ৭৪টি রোডওয়ে স্ল্যাব করে ছয় কিলোমিটারে দুই হাজার ৯৩১টি স্ল্যাব বসানো হবে বলে জানিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ।

২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটিতে প্রথম স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু। এরপর ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ৩৮ ও ৩৯ নম্বর খুঁটিতে বসানো হয় দ্বিতীয় স্প্যান। গত বছরের ১১ মার্চ ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটির ওপর বসে তৃতীয় স্প্যান। ১৩ মে ৪০ ও ৪১ নম্বর খুঁটির ওপর চতুর্থ স্প্যান বসানো হয়। ২৯ জুন সেতুর পঞ্চম স্প্যান বসানো হয়েছে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার নাওডোবা এলাকায়। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে জাজিরা প্রান্তের তীরের দিকের ষষ্ঠ শেষ স্প্যান বসে। গত মাসে জাজিরা প্রান্তে ৩৫ ও ৩৬ নম্বর খুঁটির ওপর বসানো হয়েছিল সপ্তম স্প্যান, গত মাসের ২২ তারিখে জাজিরা প্রান্তে ৩৪ ও ৩৫ পিলারের ওপর বসানো হয় নবম স্প্যান বসানো হয়। আর গত বছরের শেষ দিকে মাওয়া প্রান্তে ৪ ও ৫ নম্বর খুঁটির ওপর একমাত্র স্প্যানটি বসানো হয়। প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য ১৫০ মিটার। ফলে দশটি স্প্যান মিলে দেড় কিলোমিটার দৃশ্যমান হতে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads