• শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫
ads
স্প্যান বসাতে প্রস্তুত পদ্মা সেতুর আরো ১০ পিলার

পদ্মায় স্প্যান বসানোর জন্য প্রস্তুত আরো ১০ পিলার

ছবি : সংগৃহীত

যোগাযোগ

স্প্যান বসাতে প্রস্তুত পদ্মা সেতুর আরো ১০ পিলার

  • মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৩ এপ্রিল ২০১৯

সারা দেশের সঙ্গে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগ স্থাপনে স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন দেড় কিলোমিটার দৃশ্যমান। খুব দ্রুত গতিতে সেতুর কাজ এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে সেতুর মোট ৪২টি পিলারের মধ্যে ১৩টিতে বসানো হয়েছে ১০টি স্প্যান। আরো ১০টি পিলার স্প্যান বসানোর জন্য প্রস্তুত রয়েছে। বাকি ১৯টির কাজ দ্রুতগতিতে চলছে। এই সেতুতে স্প্যান বসবে ৪১টি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, পিলার স্থাপনের জন্য নদীতে যে ২৬২টি পাইল বসবে তার মধ্যে ২১৮টির ড্রাইভ হয়ে গেছে, বাকি ৪৪টি পাইলের কাজ চলমান রয়েছে। সব মিলিয়ে মূল সেতুর কাজের অগ্রগতি ৮০ শতাংশ।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের উপসহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর বলেন, সেতুর ২৩টি পিলার (স্প্যানধারী ১৩টি পিলারসহ) প্রস্তুত আছে। বাকি ১৯টি পিলারের কাজও চলমান। চলতি মাসেই জাজিরা প্রান্তে আরো একটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

সেতুর প্রকৌশল সূত্র জানায়, ১ নং পিলারের পাইল ক্যাপ হয়ে পিয়ারের এক লিফট শেষ হয়েছে। ৬ ও ৭ নং পিলারের পাইল ড্রাইভ সম্পন্ন হয়েছে। ১, ৬, ৭ নং পিলার প্রস্তুত হতে তিন মাস সময় লাগবে। ৮ নং পিলারের সাতটি পাইলের মধ্যে দুটি পাইল ড্রাইভ সম্পন্ন হয়েছে। ৯ নং পিলারের পাইল ক্যাপের কাজ চলছে। ১০ নং পিলারের পাইল ড্রাইভের কাজ চলছে। ১১ নং পিলারের

কাজ শুরু হয়নি। ১২ নং পিলারের পাইল ড্রাইভিংয়ের কাজ চলছে। ২৪ নং পিলারের পাইল ক্যাপ শেষ। ২৫ নং পিলারের পাইল ক্যাপ শেষ হয়ে পিয়ারের দ্বিতীয় লিফট হয়েছে। ২৬, ২৭ নং পিলারের বিআইডব্লিউটিএর চ্যানেলে, যা এখনো কাজ শুরু হয়নি। ২৮ নং পিলারের ক্যাপের কাজ চলছে। ২৯, ৩০ নং পিলারের পাইল ড্রাইভিংয়ের কাজ চলছে। ৩১ নং পিলারের পাইলিং শেষে স্ক্রিন গ্রাউটিং হচ্ছে। ১ নং পিলার থেকে ২০ নং পিলার পর্যন্ত মাওয়া প্রান্তে আর বাকিগুলো জাজিরায়।

সূত্র আরো জানায়, মাওয়া কুমারভোগ কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে ২১টি স্প্যান আছে। এর মধ্যে ১০টি স্প্যান বসানো হয়েছে। এখন ১১টি স্প্যান আছে ইয়ার্ডে। পদ্মা সেতুতে ২ হাজার ৯৩১টি রোডওয়ে স্ল্যাব বসবে। জাজিরা প্রান্তে স্প্যানগুলোতে চারটি রোডওয়ে স্ল্যাব বসেছে। প্রস্তুত করে রাখা আছে প্রায় ৩৫০ রোডওয়ে স্ল্যাব। এছাড়া ২ হাজার ৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে ২৭২টি স্ল্যাব বসেছে স্প্যানগুলোতে। পদ্মা সেতুতে তিনটি হ্যামারের মধ্যে ১৯০০ কিলোজুল ক্ষমতাসম্পন্ন একটি হ্যামার সার্ভিসিংয়ে রয়েছে।

পদ্মা সেতুর সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, জাজিরা প্রান্তে সেতুর ৩৩ ও ৩৪ নং পিলারের ওপর ‘৬-সি’ স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা আছে চলতি মাসের ২০ তারিখ। এই স্প্যানটি বসালে দৃশ্যমান হবে সেতুর ১ হাজার ৫১৫ মিটার। এরপর প্রায় দুই মাস পর সেতুর ৩২ ও ৩৩ নং পিলারের ওপর বসানো হতে পারে ‘৬-বি’ স্প্যানও।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। সেতু নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ৩৩ হাজার কোটি টাকা। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে সে দেশেরই আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রো করপোরেশন। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads