• শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
পরিবহন ধর্মঘটে অচল সিরাজগঞ্জ, যাত্রীদের দুর্ভোগ

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

যোগাযোগ

পরিবহন ধর্মঘটে অচল সিরাজগঞ্জ, যাত্রীদের দুর্ভোগ

  • সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৮ জুলাই ২০১৯

পরিবহন ধর্মঘটের ফলে অচল হয়ে পড়েছে সিরাজগঞ্জ। সিরাজগঞ্জ ও ঢাকা মহাখালী বাস মালিক সমিতির দ্বন্দ্বের জেরে সিরাজগঞ্জ পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ অনির্দিষ্টকালের জন্য সিরাজগঞ্জ জেলায় এ ধর্মঘটের ডাক দেয়।

ধর্মঘটের কারণে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে জেলার সব রুটে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

পাশাপাশি ট্রাক-মাইক্রোবাস-সিএনজি, রিক্সা মালিক-শ্রমিকরা ধর্মঘটের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে সব যানবাহন চলাচল বন্ধ দিয়েছে। ফলে সাধারণ মানুষকে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে।

জেলা শহর থেকে উপজেলা সদরে যাবার কোনো যানবাহন না থাকায় অনেককে সাধারণ মানুষসহ চাকুরীজীবীদের বাস-সিএনজি স্ট্যান্ড থেকে ফেরত আসতে হয়েছে। এছাড়াও কাঁচামাল পরিবহন করতে না পারায় কাঁচামাল ব্যবসায়ীদেও দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।

ঢাকা-বগুড়া বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় সলঙ্গা থানার বাসুদেবকোল গ্রামের আব্দুল মজিদের সাথে।  তিনি বলেন, তিন দিন আগে তার ছেলেকে চিকিৎসার জন্য সিরাজগঞ্জের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করি এখন সুস্থ। বাড়ি যাবো। কিন্তু স্ট্যান্ডে প্রায় পৌনে এক ঘণ্টা দাঁড়িয়ে আছি।

জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি জিন্নাহ আল মাজি জানান, ঢাকার মহাখালী বাস মালিক সমিতির নেতারা সিরাজগঞ্জে বাস কাউন্টার স্থাপনের দাবী করছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে একাধিকবার আলোচনা হলেও কোনো সমাধান হয়নি। এ অজুহাত দেখিয়ে ঢাকার মালিক-শ্রমিকরা সিরাজগঞ্জের বাস ঢাকা-চন্দ্রা, গাজীপুরে প্রবেশে বাঁধা প্রদান করেন এবং শ্রমিকদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরণ করে। টানা ছয়দিন ঢাকার সাথে সিরাজগঞ্জের বাস চলাচল বন্ধ ছিল। দ্বন্দ্ব নিরসনে তিনদিন সময় দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বিষয়টির কোনো সুরাহা না হওয়ায় এর প্রতিবাদে সিরাজগঞ্জের সকল পরিবহন সেক্টরের মালিক-শ্রমিকরা যৌথভাবে আলোচনা করে সিরাজগঞ্জ জেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট আহবান বাধ্য হয়েছি।

বিষয়টি সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে বলেও এই নেতা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ধর্মঘটের কারণে জেলার অভ্যন্তরীন রুটসহ দেশের সব জেলায় সিরাজগঞ্জের বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। পাশাপাশি ট্রাক, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাও বন্ধ রয়েছে।”

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads