• বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৬
ads
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ফেরিগুলো স্রোতের বিপরীতে স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে না পারায় পারাপারের অপেক্ষায় শতশত যানবাহন

ছবি : বাংলাদেশের খবর

যোগাযোগ

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

৬ শতাধিক যানবাহন আটকা

  • গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ফেরিগুলো স্রোতের বিপরীতে স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারছে না। প্রতিটি ফেরি নদী পার হতে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ সময় লাগছে। এতে করে যানবাহন পারাপার চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এক সপ্তাহ ধরে চলছে এ অবস্থা। এতে করে প্রতিদিনই ঘাটে আটকা পড়ছে শতশত যানবাহন।

আজ রবিবার বিকেল ৪টা নাগাদ যানবাহনের সারি দৌলতদিয়া ফেরিঘাট থেকে ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত আড়াই কিমি. জুড়ে বিস্তৃত ছিল। আটকে থাকা যানবাহনের সারিতে একই সাথে এসি-ননএসি বাস, ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানসহ অন্তত ৩ শতাধিক যানবাহন আটকে থাকতে দেখা যায়। পাটুরিয়া প্রান্তেও একইভাবে ৩ শতাধিক যানবাহন আটকা আছে ঘাট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ জানায়, পদ্মায় তীব্র স্রোতের কারণে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে শনিবার টানা ৭ ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে। যার প্রভাব পড়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটের উপর। পাশাপাশি এ রুটেও তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। অতিরিক্ত যানবাহন ও ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় দৌলতদিয়ায় পাড়ের অপেক্ষায় সিরিয়ালে আটকা পড়ছে যানবাহনগুলো।

বিআইডব্লিউটিসি’র আরিচার এজিএম (ভারপ্রাপ্ত) তানভির হোসেন জানান, স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ফেরি পারাপারে প্রায় দ্বিগুণ সময় লাগাতে কমে গেছে ফেরির ট্রিপ সংখ্যা। পাশাপাশি এ রুটের ১৯ ফেরির মধ্যে চলছে মাত্র ১৪টি ফেরি। খানজাহান আলী নামের রোরো ফেরিটি ৩ দিন ধরে এবং সন্ধ্যামালতি ফেরিটি এক সপ্তাহ ধরে যান্ত্রীক দুর্বলতার কারনে তীব্র স্রোতের বিপরীতে চলতে পারছে না। এ অবস্থায় খানজাহান আলী ফেরিকে সংস্কারের জন্য নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ডে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। রুটের রোরো ফেরি আমানত শাহ ও কে-টাইপ ফেরি হাসনা হেনা বেশ কিছুদিন ধরে সংস্কারের জন্য নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। শাপলা শালুক নামের অপর ফেরিটি বাহাদুরাবাদ-বালাসী রুটে পাঠানো হয়েছে।

সরেজমিন দুপুর ২টার দিকে দৌলতদিয়া মডেল হাইস্কুল এলাকায় সিরিয়ালে আটকে থাকা যমুনা গ্রুপের কাভার্ডভ্যান চালক শামীম আহসান জানান, তিনি মাদারীপুর হতে রাত ১টার দিকে গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় আসলে পুলিশ ওখানকার দীর্ঘ সিরিয়ালে আমাকে দেয়। সারারাত শেষে সকাল ৯টার দিকে ওখান থেকে ছেড়ে দিলে দৌলতদিয়া ঘাটে আসি। বেলা ২ টা পার হয়ে গেলেও এখনো ঘাট থেকে প্রায় দেড় কিমি দুরে আসি। তবে বর্তমানে ঘাটের শৃঙ্খলা বেশ ভাল মনে হচ্ছে। আশা করছি সময় লাগলেও বাড়তি ভোগান্তি ছাড়াই ফেরির নাগাল পাব।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া অফিসের ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ রনি জানান, মানুষের দূর্ভোগ কমাতে যাত্রীবাহি যানবাহনগুলোকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপার করা হচ্ছে বলে পণ্যবাহী যানবাহনগুলো সিরিয়ালে আটকে পড়ছে। তবে কোচ টাইমের বাইরে সুযোগ মতো আটকে পড়া ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান পার করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads