• মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় লঞ্চ চলাচল শুরু

ছবি : সংগৃহীত

যোগাযোগ

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় লঞ্চ চলাচল শুরু

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১০ অক্টোবর ২০১৯

পদ্মা নদীতে প্রচণ্ড স্রোতের কারণে ছয়দিন বন্ধ থাকার গতকাল বুধবার লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় প্রশাসন। এর পর থেকে কিছু লঞ্চ চলাচল শুরু করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পুরোদমে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে এ দুই ঘাটে। তবে নদীতে আজও স্রোত থাকায় ব্যহত হচ্ছে লঞ্চ চলাচল। অনেকটা ধীরগতিতে চলছে লঞ্চ।

লঞ্চ চলাচলের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউটিসি’র দৌলতদিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) রুহুল আমিন।

তিনি জানান, তীব্র স্রোতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ভাঙন ও ভাঙন ঝুঁকির কারণে ৬টি ঘাটের ৪টি বন্ধ রয়েছে। ৫টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

জানা গেছে, আজও নদীতে তীব্র স্রোত রয়েছে। ফলে এ রুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ফেরিঘাট ভাঙনের ঝুঁকিতে থাকায় সীমিত আকারে ফেরি চলাচল করছে। ফলে দৌলতদিয়া প্রান্তের সড়কে কয়েকশ যাত্রীবাহী বাস ও পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়েছে।

অপরদিকে দৌলতদিয়ায় ভয়াবহ নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। গত ৯ দিনের ভাঙনে দৌলতদিয়ার ১ ও ২ নম্বর ফেরি ঘাটসহ শতশত বসতবাড়ি ও স্থাপনা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এখন ভাঙন ঝুঁকিতে রয়েছে ৩ ও ৪ নম্বর ঘাটসহ বহু বসতবাড়ি ও স্থাপনা। ভাঙন ঝুঁকিতে থাকায় দৌলতদিয়া প্রান্তের ৬টি ফেরি ঘাটের ৪টি ঘাট বন্ধ রয়েছে। ভাঙন রোধে কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটের সুপার ভাইজার মো. মোফাজ্জেল হোসেন জানান, স্রোতের তীব্রতা কিছুটা কমায় এ রুটে চলাচলরত বড় এমভি লঞ্চগুলো চলাচল শুরু করেছে।

গত ৪ অক্টোবর পদ্মায় তীব্র স্রোতের কারণে এ রুটে লঞ্চ চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠে। ফলে দুর্ঘটনা এড়াতে লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেয় প্রশাসন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads