• সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ীতে এবার লঞ্চ চলাচলে অচলাবস্থা, চলছে সি-বোট

ফাইল ছবি

যোগাযোগ

শিমুলিয়া-কাঠালবাড়ীতে এবার লঞ্চ চলাচলে অচলাবস্থা, চলছে সি-বোট

  • মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২০ অক্টোবর ২০২০

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাথে সড়ক ও নৌ-পথে যোগাযোগের অন্যতম প্রবেশ পথ মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের শিবচরের কাঠালবাড়ী এবং শরিয়তপুরের জাজিরার মাঝিকান্দি নৌ-রুটে গত কয়েক মাস ধরে নব্যতা সংকটে এ নৌ-রুটে দফায় দফায় ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে। তবে মাঝে দুয়েকদিন কয়েকটি ফেরি চলাচল করলেও  রোরো ও ঠেলা ফেরিগুলো কয়েক মাস ধরেই ঘাটে নোঙ্গর করা রয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা যায়, চলতি মাসের ১২ অক্টোবর থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ফেরি চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়।বিআইডব্লিটিএ কতৃপক্ষ বেশ কটি ড্রেজার দিয়ে কোটি কোটি টাকা ব্যায় করেও চ্যানেলের নাব্যতা ফেরাতে না পারায় এ নৌ-রুট ব্যাবহারকারী নিয়মিত চলাচলরত যানবহনের চালক ও শ্রমিকরা পরেন ভোগান্তিতে ।তবে ঘাটে দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষায় থেকে পারাপার হতে না পেরে যানবাহনগুলো ঘাট থেকে চলে যাওয়ায় একেবারেই জনশূন্য ও যানবাহন শূন্য হয়ে পরে  ঘাটগুলো।এদিকে নব্যতা সংকটে এ নৌ-রুটের ৮৭টি লঞ্চ নিয়মিত চলাচল করতে পারছে না ।

বিআইডব্লিউটিএর সমুদ্র পরিবহন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শাহাদাৎ হোসাইন জানান, গত রোববার এ নৌ-রুটের চ্যানেলের মধ্যে একসাথে প্রায় ৩০টি যাত্রীবাহী লঞ্চ আটকা পরে। আর সেই থেকেই এ নৌ-রুটে দিনের বেলায় মাত্র কয়েক ঘন্টা অল্প যাত্রী নিয়ে সীমিত পরিসরে চলাচল করছে লঞ্চগুলো।তবে এসব লঞ্চগুলোও পদ্মা সেতুর ২৪ ও ২৫ নাম্বার পিলারের কাছে এসে ঠেকে যাচ্ছে তাই লঞ্চ চলাচলেও অচলাবস্থা তৈরি হচ্ছে।যার ফলে যাত্রীরা ট্রলারে ও সি-বোটে পারাপার হচ্ছে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads