• মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৫ মাঘ ১৪২৭
আখাউড়া-লাকসাম ডাবল লাইনের রেলপথ, ক্ষতিপূরণের দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

যোগাযোগ

আখাউড়া-লাকসাম ডাবল লাইনের রেলপথ, ক্ষতিপূরণের দাবি ক্ষতিগ্রস্তদের

  • আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৯ নভেম্বর ২০২০

আখাউড়া-লাকসাম নির্মাণাধীন ডাবল রেলপথ প্রকল্পের ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিয়ে উচ্ছেদ অভিযান করার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। রোববার দুপুরে আখাউড়া পৌরশহরের দেবগ্রাম স্কুল মাঠে দেবগ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ অর্ধশতাধিক পরিবার এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পৌর কৃষকলীগের সভাপতি ও ভূক্তভোগী হাজী আব্দুর রহিম। তিনি বলেন, আখাউড়া-লাকসাম ডাবল রেলপথ প্রকল্পের কারণে দেবগ্রাম এলাকার অর্ধশতাধিক পরিবারের বাড়িঘরসহ বহু গাছপালা রেলপথের আওতায় পড়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ আমাদেরকে ক্ষতিপূরণ না দিয়ে বিনা নোটিশে গত ১৪ ও ১৫ নভেম্বর দেবগ্রাম এলাকায় ক্ষতিগ্রস্থ অর্ধশতাধিক পরিবারের গাছপালা, ঘরবাড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনা ভাঙ্গা শুরু করে। এসময় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর বাধার মুখে অভিযান বন্ধ রাখে কর্তৃপক্ষ। এসময় আখাউড়া-লাকসাম ডাবল রেলপথ প্রকল্পের উপ-পরিচালক (পুর্নবাসন) মো: ওমর ফারুক ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে আশ্বস্ত করেন ক্ষতিপূরণ দিয়েই উচ্ছেদ অভিযান করা হবে। কিন্তু দুই সপ্তাহ অতিবাহিত হয়ে গেলেও রেলকর্তৃপক্ষ আমাদেরকে ক্ষতিপূরণ দেয়নি।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর অভিযোগ, প্রকল্প কর্তৃপক্ষ ক্ষতিপূরণ না দিয়ে আমাদেরকে উচ্ছেদ করার পায়তারা করছে। প্রকল্প কর্তৃপক্ষ গত ২৭ নভেম্বর এলাকায় মাইকে প্রচার করেছে ৩০ নভেম্বর ও ১ ডিসেম্বর উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হবে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত অর্ধশতাধিক পরিবারের মাঝে উচ্ছেদ আতঙ্ক বিরাজ করছে। উচ্ছেদ অভিযানের আগে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন ভূক্তভোগী পরিবারগুলো।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুল মিয়া বলেন, ‘সরকার উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য জায়গা নিয়ে নিয়মমাফিক সব ধরণের ক্ষতিপূরণ দেয়। কিন্তু দেবগ্রামের বেশ কিছু এলাকায় ক্ষতিপূরণ দিতে গিয়ে গড়িমসি করা হচ্ছে। এতে অনেকে ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। যে কারণে ক্ষতিপূরণ না দিয়ে জমি নিতে দেয়া হবে না বলে সবাই একত্রিত হয়েছেন।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে আখাউড়া-লাকসাম ডাবল রেলপথ প্রকল্পের উপ-পরিচালক (পুর্নবাসন) মো: ওমর ফারুক বলেন এলাকাবাসীর আতঙ্কিত হওয়ার কোন কারণ নাই। অফিসিয়াল জটিলতায় কিছুটা দেরি হলেও প্রত্যেককে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads