• বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫
ads
৩২ কর্মকর্তা কর্মচারীকে দুদকে তলব

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)

সংরক্ষিত ছবি

অপরাধ

বড়পুকুরিয়া কয়লা কেলেঙ্কারি

৩২ কর্মকর্তা কর্মচারীকে দুদকে তলব

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৪ আগস্ট ২০১৮

খোলাবাজারে কয়লা বিক্রির মাধ্যমে ২৩০ কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির সাবেক-বর্তমান মিলিয়ে আরো ৩২ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল সংস্থার উপপরিচালক মো. সামছুল আলম পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যানের মাধ্যমে এ নোটিশ দেন। তাদের আগামী ১৬, ২৮, ২৯ ও ৩০ আগস্ট দুদক কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে।

এদিকে খোলাবাজারে কয়লা বিক্রি করে অর্থ আত্মসাৎ মামলায় বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির মহাব্যবস্থাপক (সারফেস অপারেশন) সাইফুল ইসলাম সরকারকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক। গতকাল সোমবার সংস্থার উপপরিচালক মো. সামছুল আলম তাকে টানা ৪ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেন। দুদক সূত্র জানায়, তলবী নোটিশ পাওয়া ৩২ কর্মকর্তা-কর্মচারী হলেন, উপমহাব্যবস্থাপক (মেনটেন্যান্স অ্যান্ড কন্টাক্ট ম্যানেজমেন্ট) মো. নাজমুল হক, ব্যবস্থাপক (কোল হ্যান্ডলিং ম্যানেজমেন্ট) মো. শোয়েবুর রহমান, ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) মো. সাইদ মাসুদ, উপব্যবস্থাপক (মেনটেন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন) মো. মাহাবুব হোসেন, সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) মো. মনিরুজ্জামান, সহকারী ব্যবস্থাপক (কোল হ্যান্ডলিং ম্যানেজমেন্ট) মো. মাহাবুব রশিদ ও ব্যবস্থাপক (স্টোর) মো. দিদারুল কবির, মহাব্যবস্থাপক (মাইন অপারেশন) আবু তাহের মো. নূরুজ্জামান চৌধুরী; উপমহাব্যবস্থাপক একেএম খালেদুল ইসলাম, উপব্যবস্থাপক (মেনটেন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন) মোরশেদুজ্জামান; উপ-ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) হাবিবুর রহমান, উপব্যবস্থাপক (মাইন ডেভেলপমেন্ট) জাহেদুর রহমান, উপব্যবস্থাপক (ভেন্টিলেশন ম্যানেজমেন্ট) সত্যেন্দ্রনাথ বর্মণ, ব্যবস্থাপক (নিরাপত্তা) সৈয়দ ইমাম হাসান ও উপমহাব্যবস্থাপক (মাইন প্ল্যানিং অপারেশন) জোবায়ের আলী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহমদ, সাবেক মহাব্যবস্থাপক (এক্সপ্লোরেশন), কোম্পানি সেক্রেটারি আবুল কাশেম প্রধানিয়া ও মোশারফ হোসেন সরকার; মহাব্যবস্থাপক (জেনারেল সার্ভিস) মাসুদুর রহমান হাওলাদার, ব্যবস্থাপক (প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট) অশোক কুমার হালদার, ব্যবস্থাপক (মেনটেন্যান্স অ্যান্ড অপারেশন) আরিফুর রহমান, ব্যবস্থাপক (ডিজাইন,কন্সট্রাকশন অ্যান্ড মেনটেন্যান্স) জাহিদুল ইসলাম, উপব্যবস্থাপক (সেফটি ম্যানেজমেন্ট) একরামুল হক, উপব্যবস্থাপক (কোল হ্যান্ডলিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট) মো. খলিলুর রহমান; সাবেক মহাব্যবস্থাপক (ফাইন্যান্স) আবদুল মান্নান পাটোয়ারী ও গোপাল চন্দ্র সাহা, ব্যবস্থাপক (হিসাব) সারোয়ার হোসেন, ব্যবস্থাপক (সেলস ও রেভিনিউ কালেকশন) মো. কামরুল হাসান; উপব্যবস্থাপক (মার্কেটিং ও কাস্টমার সার্ভিসেস) মোহাম্মদ নোমান প্রধানিয়া, সাবেক মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) একেএম সিরাজুল ইসলাম ও শরিফুল আলম, সহকারী ব্যবস্থাপক (নিরাপত্তা) আল আমিন।

উল্লেখ্য, ১ লাখ ৪৪ হাজার ৬৪৪ টন কয়লা (বর্তমান বাজারমূল্য ২৩০ কোটি টাকা) আত্মসাৎ মামলার তদন্ত প্রক্রিয়ায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের তলব করা হয়েছে। বড়পুকুরিয়া কয়লা উত্তোলন কোম্পানির মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) মোহাম্মদ আনিসুর রহমান বাদী হয়ে গত ২৪ জুলাই দিনাজপুরের পার্বতীপুর থানায় মামলা করেন। এতে প্রতিষ্ঠানটির সাময়িক বরখাস্তকৃত ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিব উদ্দিন আহমেদসহ ১৯ জনকে আসামি  করা হয়।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads