• বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯, ৯ শ্রাবণ ১৪২৫
ads
স্বামীর কাছে তালিম নিয়ে স্ত্রীর জাল নোটের কারবার

জাল নোট

ছবি : সংগৃহীত

অপরাধ

স্বামীর কাছে তালিম নিয়ে স্ত্রীর জাল নোটের কারবার

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো
  • প্রকাশিত ১৮ এপ্রিল ২০১৯

গত মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রাম নগরীর স্টেশন রোড এলাকা থেকে এক লাখ ৩৫ হাজার টাকার জাল নোটসহ দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কুমিল্লা থেকে জাল নোটের জোগানদাতাকেও গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার হওয়া তিনজন হলেন- স্বপ্না বেগম ওরফে তানিয়া (৩০), মো. শামীম (২১) ও ফেরদৌসী বেগম (৫২)।

পুলিশ জানায়, তানিয়ার সাবেক স্বামী মনির হোসেন জাল টাকার কারবারি। তার বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় মামলা আছে। সাবেক স্বামীর কাছ থেকেই এই ব্যবসা আয়ত্ত করেছেন তানিয়া।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, চট্টগ্রাম রেলস্টেশন এলাকায় মঙ্গলবার রাতে জাল টাকাগুলো নিয়ে অবস্থান করছিলেন তানিয়া ও শামীম। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাত সাড়ে ১১টার দিকে কোতোয়ালি থানা পুলিশের একটি রেলস্টেশনের দুই নম্বর গেটে গেলে তারা সেখান থেকে সটকে পড়ার চেষ্টা করে। পরে তাদের আটক করে তল্লাশি করে জাল নোট উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা মহসিন বলেন, তানিয়ার ভ্যানেটি ব্যাগে এক হাজার টাকার ১০০টি জাল নোট উদ্ধার করা হয়। যেগুলোতে ‘খ ল ৪৮৬০২৩০’ নম্বর দেওয়া আছে। শামীমের প্যান্টের পকেটেও একই নম্বরের ৩৫টি নোট পাওয়া যায়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছেন কুমিল্লা সদর এলাকার ফেরদৌসির কাছ থেকে এসব জাল নোট সংগ্রহ করেন। পরে তাদের নিয়ে অভিযান চালিয়ে কুমিল্লার কোতোয়ালি থানার দক্ষিণ চার্থা এলাকা থেকে ফেরদৌসিকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি বলেন, তানিয়া ও ফেরদৌসি দীর্ঘদিন ধরে এ কাজে জড়িত। তানিয়ার বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাঞ্ছারামপুর, কুমিল্লার বুড়িচং ও বাঙ্গরা থানায় তিনটি মামলা আছে। ফেরদৌসির বিরুদ্ধে কুমিল্লার কোতোয়ালি, সদর দক্ষিণ, চান্দিনা ও কক্সবাজার সদর থানায় চারটি মামলা আছে।

কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো কামরুজ্জামান জানান, তানিয়ার সাবেক স্বামী মনির হোসেন ছিলেন জাল টাকার কারবারি। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মামলা আছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে তানিয়ার বাড়ি হলেও থাকেন সীতাকুণ্ডের মাদামবিবির হাট এলাকায়। তিনজনের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫-অ (ই) ধারায় মামলা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads