• বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯, ৯ শ্রাবণ ১৪২৫
ads
ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় ফুফুকে কুপিয়ে হত্যা

ছবি : সংগৃহীত

অপরাধ

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় ফুফুকে কুপিয়ে হত্যা

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২৭ জুন ২০১৯

ঠাকুরগাঁওয়ে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় ভাতিজা জীবনের ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেল নার্স তানজিনা আক্তারের (২০)। দীর্ঘ সাতদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে অবশেষে হার মানেতে হলো তাকে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকাকালীন সময়ে তার মৃত্যু হয়। তানজিনা ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার সালান্দর মাদ্রাসা পাড়ার আব্দুল হামিদের মেয়ে এবং সে ঠাকুরগাঁও গ্রামীণ চক্ষু হাসপাতালের নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

জানা যায়, গত ২০ জুন সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে কর্মস্থল চক্ষু হাসপাতালে যাচ্ছিলেন তানজিনা। এসময় তার পথরোধ করে বখাটে আরমান হোসেন জীবন সহ তার কয়েকজন বন্ধু। এসময় তানজিনা চিৎকার শুরু করলে আরমান সহ তার বন্ধুরা পিছন থেকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার পিঠে, বুকে ও হাতে কুপিয়ে জখম করে। এসময় স্থানীয়রা এগিয়ে এলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ২১ জুন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

তানজিনার বাবা হামিদ আলী অভিযোগ করে বলেন, জীবন প্রতিদিন এলাকার বিভিন্ন মেয়েদের উত্ত্যক্ত করতো। ভুক্তভোগী স্কুলগামী ছাত্রীরা আমার মেয়েকে অভিযোগ দেয়। এরপর আমার মেয়ে জীবনকে শাসন করে। এরই জের ধরে সে আমার মেয়েকে ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads