• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
ads
রামগঞ্জে রাতভর কিশোরীকে গণধর্ষণ, আটক ৩

রাতভর কিশোরীকে গণধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

অপরাধ

রামগঞ্জে রাতভর কিশোরীকে গণধর্ষণ, আটক ৩

  • লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২২ অক্টোবর ২০১৯

লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ডেকে নিয়ে রাতভর গণধর্ণষের অভিযোগ উঠেছে ৫ বখাটের বিরুদ্ধে।

আজ মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) সকালে উপজেলার ভাদুর ইউনিয়নের পশ্চিম ভাদুর গ্রামে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তিন জনকে আটক করেছে। মূমুর্ষ অবস্থায় ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে প্রথমে রামগঞ্জ ও পরে অবস্থার অবনতি হলে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

গণধর্ষণের শিকার কিশোরী উপজেলার ভোলাকোট ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের এক দিনমজুরের মেয়ে।

আটককৃতরা হলেন পশ্চিম ভাদুর গ্রামের ব্যাপারী বাড়ীর আবদুল মতিনের ছেলে মোঃ ইমন, অজি উল্যা ভূইয়া বাড়ীর মোঃ তোতা মিয়ার ছেলে মোঃ শরীফ ও একই এলাকার রাসেল। তারা সবাই একই ইউনিয়নের পশ্চিম ভাদুর গ্রামের বাসিন্দা বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, নোয়াপাড়া গ্রামের ওই কিশোরীর বাবা-মা কয়েক বছর পূর্বেই পৃথক বিয়ে করে অন্যত্র চলে যায়। বাড়িতে কিশোরী একাই বসবাস করতো।
এ সুযোগে কিছুদিন পূর্বে পার্শবর্তী ভাদুর ইউনিয়নের পশ্চিম ভাদুর গ্রামের ওমর আলী মিঝি বাড়ীর মো. ইব্রাহিমের ছেলে ও ওয়াকর্শপ মিস্ত্রি মোঃ শাওন নোয়াপাড়া কিশোরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে

ঘটনার দিন সোমবার রাতে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে কিশোরীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে শাওন পশ্চিম ভাদুর গ্রামে তার বন্ধু ইমনের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে রাত ওই বাড়িতেই আরো তিন বন্ধু এসে মোট ৫ জন মিলে রাতভর কিশোরীকে জোরপূর্বক গণধর্ষণ করে। এতে গুরুত্বর আহত হয়ে পড়ে কিশোরী।

সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌছে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ঘটনার পর থেকে প্রেমিক মোঃ শাওনসহ দুজন পলাতক রয়েছে।

খবর শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে যান লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার এ এইচ এম কামরুজ্জামান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্পীনা রানী প্রামানিক।

কিশোরীর বাবা জানান, আমি অন্যত্র থাকায় নিকটাত্মীয়দের মাধ্যমে খবর শুনে থানায় এসেছি।

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মো. আনোয়ার হোসেন জানান, মুমূর্ষ অবস্থায় ধর্ষণের শিকার এক কিশোরীকে হাসপালে ভর্তি করা হয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরনের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। পরীক্ষা নিরীক্ষার পর শারিরীক অবস্থার কথা বলতে পারবো।

এ ব্যাপারে রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, কিশোরীকে গণধর্ষণের ঘটনায় তিন ধর্ষককে আটক করা হয়েছে। অভিযুক্ত শাওনসহ বাকী দুজনকে আটকের জন্য পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে। এ ঘটনায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads