• মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
কালিয়াকৈরে বিপুল পরিমান সরকারি চাল জব্দ

কালিয়াকৈরে অভিযান চালিয়ে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির বিপুল পরিমান চাল জব্দ

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

অপরাধ

কালিয়াকৈরে বিপুল পরিমান সরকারি চাল জব্দ

  • কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২২ অক্টোবর ২০১৯

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে মাকিশবাথান এলাকায় পুলিশ প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাাসন গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির বিপুল পরিমান চাল জব্দ করেছে বলে জানা গেছে।

অভিযানে সুত্রে জানা যায়, রোববার গভীর রাতে ৮শ বস্তা খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির সরকারি চাল মাকিশবাথান এলাকায় আসাদ কালার শর্টার মিলে আসে। উপজেলা প্রশাসন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পুলিশ প্রেরণ করেন। এ সময় থানা পুলিশের এস আই সোহেল রানা, আঃ হাকিম, মুক্তি মাহমুদ, ইমরান হোসেন শর্টার মিলে রাখা ৪শ বস্তাা চাল আটক করে।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ৪শ বস্তা চাল সহ আরো একটি ট্রাক পালিয়ে যায়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী হাফিজুল আমিন এর নির্দেশে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইশতিয়াক আহমেদ ঘটনাস্থলে যান। ততক্ষনে ঘটনাস্থলে এডিশনাল এসপি গোলাম সবুর ও ডিবি পুলিশের টহল টিম এসে উপস্থিত হয়। এসময় সরকারি চাল জব্দ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মিলের লেবারদের থানায় নেওয়া হয়। এসময় শর্টার মিলের মালিক সুমনকে কোন ভাবেই খোজে পাওয়া যায় নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে চাল গুলো কালিয়াকৈর খাদ্য গোদাম থেকে বিক্রি হয়েছে। নিয়মিত উপজেলার খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলাররা ১০ টাকা কেজি মূল্যের চাল ১৫ টাকায় বিক্রি করে। পরে গোডাউন কর্তৃপক্ষের একটি চক্র অবৈধভাবে সেই চাল শর্টার মিলে বিক্রি করে দেয়। এসব চাল শর্টার করে বাজারে উচ্চ মূল্যে দাদা রাইচ কোম্পানির নামে বিক্রি হয়। তবে অভিযানে উপস্থিত থাকা কালিয়াকৈর গোডাউন কর্তৃপক্ষের কামাল নামে এক ব্যক্তি বলেন, এসব আমাদের গোডাউনের চাল কিনা তা বুঝার উপায় নেই। এই কর্মসূচির সব বস্তাই এক রকম।

ওই শর্টার মিলে অবৈধভাবে প্লাস্টিকের পলিতে মোড়ানো প্রায় ১৫শ বস্তা দাদা রাইচ কোম্পানির নামের সীলের চাল পাওয়া যায়। যেসব চাল খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির চাল থেকে শর্টার করা হয়েছে। গভির রাতে ওই মিলে পুলিশ পাহারার ব্যবস্থা করেন এডিশনাল এসপি। সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইশতিয়াক আহমেদ জানান, চাল জব্দ করা হয়েছে। মিল সিলগলা হয়েছে। মালিকের নামে মামলা হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads