• বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
শজিমেক হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া নবজাতক উদ্ধার

সংগৃহীত ছবি

অপরাধ

শজিমেক হাসপাতাল থেকে চুরি যাওয়া নবজাতক উদ্ধার

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৫ নভেম্বর ২০১৯

বগুড়া শহীদ জিয়াউর মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতককে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

একই সঙ্গে এ ঘটনায় জড়িত রেশমা খাতুন (৩৫) নামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি স্বামী পরিত্যক্ত ও শাজাহানপুর উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত সাত্তার মন্ডলের মেয়ে।

পুলিশ জানায়, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের গাইনী বিভাগ থেকে সদ্যভূমিষ্ঠ শিশুটি গত বুধবার দুপুর ২টায় চুরি হয়ে যায়। মামলা রেকর্ড হওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে নবজাতককে শহরের লতিফপুর কলোনী থেকে জনৈক ফারুকের বাড়ি থেকে নবজাতককে উদ্ধার করা হয়।

শিশুটি উদ্ধারের পর শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মায়ের কাছে হস্তান্তর করেন বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঁইয়া। এসময় তিনি ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ১০ হাজার টাকা শিশুটির মায়ের হাতে উপহার হিসেবে দেন। সেখানে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম বদিউজ্জামানসহ পুলিশ কর্মকর্তা ও শিশুর স্বজনরা। নবজাতককে ফিরে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েন মা।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার বগুড়ার কাহালু উপজেলার নলখড়িয়া গ্রামের মো. সৌরভের স্ত্রী নাহিদা আক্তারের (২৮) প্রসব বেদনা উঠলে দুপুর ১টায় এই শজিমেক হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ভর্তি হন। এরপর স্বাভাবিকভাবে তিনি একটি ছেলে সন্তান প্রসব করেন। প্রসবের পর এক অপরিচিতি এক নারী শিশুটিকে ওয়ার্ডে নিয়ে চিকিৎসা করার কথা বলে চুরি করে নিয়ে যায়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads