• শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
জেল মিশ্রিত আড়াই টন গলদা চিংড়ি ও ২ টন জাটকাসহ আটক ৬

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

অপরাধ

জেল মিশ্রিত আড়াই টন গলদা চিংড়ি ও ২ টন জাটকাসহ আটক ৬

  • লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৪ মে ২০২০

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়াঘাটে ২ মেট্রিক টন জাটকা ইলিশ ও জেল মিশ্রিত আড়াই মেট্রিকটন গলদা চিংড়ি মাছসহ ২টি ট্রাক জব্দ করা হয়েছে। অবৈধ ও অসৎভাবে মাছ ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার অপরাধে আটক করা হয়েছে ৬ ব্যক্তিকে।  মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ও উপজেলা মৎস্য অফিসের যৌথ অভিযানে তাদেরকে আটক করা হয়।

খুলনার বাগেরহাট থেকে ঢাকা যাওয়ার সময় রোববার দিবাগত রাতে মাওয়া ফেরি ঘাটে ২টি ট্রাক ও দ্ইু ধরণের মাছসহ তাদের আটক করা হয়।

লৌহজং উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মে. ইদ্রিস তালুকদার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার সকালে শিমুলিয়াঘাটে অভিযান চালায় মাওয়া নৌ-পুলিশের (আইসি) পরিদর্শক সিরাজুল কবিরের নের্তৃত্বে একদল নৌ-পুলিশ। এসময় আটক করা হয় মাছ ভর্তি দুটি ট্রাক। এসব ট্রাক থেকে উদ্ধার করা হয় ২ মেট্রিক টন জাটকা ইলিশ ও আড়াই মেট্রিকটন জেল মিশ্রিত গলদা চিংড়ি মাছ।

মাওয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ পরিদর্শক সিরাজুল কবির বলেন, অসৎ এ মাছ ব্যবসায়ীরা একদিকে যেমন অবৈধভাবে জাটকা ইলিশ ধরে দেশের অর্থনীতির ক্ষতি করছে। তার চেয়েও বড় ক্ষতি করছে চিংড়ি মাছের পেটে জেল জাতীয় পদার্থ ঢুকিয়ে, যা মানব দেহের জন্য ব্যাপক ক্ষতিকর। এতে অসৎ এ ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে লাভবান হলেও প্রতারিত হচ্ছে ক্রেতা। তাই আটক এ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল জরিমানার ব্যবস্থা করে হবে।

আর জব্দকৃত জাটকাগুলো মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে গরীর দুঃখী মানুষের মাঝে বিলিয়ে দেয়া হয়।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads