• সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭
ads
রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যানের সহযোগী তারেক গ্রেপ্তার

প্রতীকী ছবি

অপরাধ

রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যানের সহযোগী তারেক গ্রেপ্তার

  • বাসস
  • প্রকাশিত ০৯ জুলাই ২০২০

বেসরকারী রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদের অন্যতম সহযোগি তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর তেঁজগাও নাখাল পাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাবের আইন ও গনমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক সুজয় সরকার আজ গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানিয়ে বলেন, প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলী গুরুত্বপূর্ন তথ্য দিয়েছে। তার দেয়া তথ্য-উপাত্ত যাচাই বাচাই করা হচ্ছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

রিজেন্ট হাসপাতালের ঘটনায় ইতোপূর্বে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত গত সোমবার অভিযান চালিয়ে ৮ জনকে গ্রেপ্তার করে। তাদের মধ্যে ৭ জন ৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছে। অপ্রাপ্ত বয়স্ক (শিশু) এক আসামীকে গাজীপুরের টঙ্গীস্থ শিশু সংশোধনী কেন্দ্রে পাঠানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এনিয়ে এখন পর্যন্ত রিজেন্ট হাসপাতালে দুনীতি, অনিময়,জাল-জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাৎ এর ঘটনায় মোট ৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ও তার পরিবারের সংশ্লিষ্টদের ব্যাংক হিসাব তলব করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তাদের ব্যাংক হিসাব খতিয়ে দেখবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিএফআইইউ (বাংলাদেশ ফিন্যানশিয়াল ইন্টেলিজেন্ট ইউনিট)।

বুধবার দিবাগত রাতে সংস্থাটির প্রধান আবু হেনা মো. রাজী হাসান গনমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘আইন অনুযায়ী কোনও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে রিপোর্ট থাকলে বা কারও ব্যাপারে তথ্যের দরকার হলে আমরা ব্যাংক হিসাব তলব করি। রিজেন্ট হাসপাতালের মালিকের ব্যাংক হিসাবও আইন মেনে তলব করা হয়েছে।’ সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের নির্বাহী প্রধানদের কাছে এ বিষয়ে তথ্য চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

এছাড়া এঘটনায় বুধবার বিকেলে রাজধানীর মিরপুর ১২ নম্বরে সেকশনে রিজেন্ট হাসপাতালটি সিলগালা করে দেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।
গত মঙ্গলবার করোনাভাইরাসের সন্দেহভাজন নমুনা পরীক্ষা না করেই ভূয়াা রিপোর্ট প্রদান, নিয়মবহির্ভূতভাবে গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা আদায় এবং মেয়াদপূর্তির পরও লাইসেন্স নবায়ন না করাসহ বিভিন্ন অভিযোগে করোনা ডেডিকেটেড বেসরকারি রিজেন্ট হাসপাতাল সিলগালা করে দেয় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।
এরপর ঘটনার দিন মঙ্গলবার মধ্য রাতেই রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদসহ ১৭ জনকে আসামি করে ডিএমপির উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করে এলিট ফোর্স র‌্যাব।

বুধবার বিকেলে রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেডের উত্তরা শাখা সিলগালা করার পর এবার মিরপুরের শাখাটিও সিলগালা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর আগে হাসপাতালের ভেতরের সব জিনিসপত্র গুনে রাখা হয়েছে। এ সময় হাসপাতালে কোনও রোগী ছিল না।

সরকারের সঙ্গে হাসপাতালটির চুক্তি ছিল ভর্তি রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার। সরকার এ ব্যয় বহন করবে। কিন্তু তারা রোগীপ্রতি লাখ টাকার বেশি বিল আদায় করেছে। রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দিয়েছে এই মর্মে সরকারের কাছে ১ কোটি ৯৬ লাখ টাকার বেশি বিলও জমা দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads