• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
রোজায় যশোরে গড়ে উঠেছে মৌসুমি দোকান

রোজায় মৌসুমি দোকান গড়ে উঠেছে যশোরে

ছবি : বাংলাদেশের খবর

অর্থ ও বাণিজ্য

রোজায় যশোরে গড়ে উঠেছে মৌসুমি দোকান

  • রাহুল রায়, যশোর
  • প্রকাশিত ২১ মে ২০১৮

রীতি মেনে রোজার সময় অন্য অঞ্চলের মতো দুপুর পর্যন্ত যশোরের হোটেল-রেস্তোরাঁগুলোয় তেমন ভিড় চোখে পড়ে না। সেই সুবাদে হোটেল-রেস্তোরাঁর কর্মীদের কিছুটা সময় বিশ্রামের ফুরসত মেলে। অলস দুপুর কাটিয়ে বিকাল নামতেই ইফতার ঘিরে ব্যস্ত হয়ে পড়েন তারা। শহরের বাণিজ্যিক এলাকার আশপাশের রাস্তা-ফুটপাথে এসব হোটেল-রেস্তোরাঁর সামনের দিকে গড়ে উঠেছে খণ্ডকালীন ইফতারের দোকান। মৌসুমি দোকান বললেও ভুল হবে না। সারা দিনের মন্দা এই মৌসুমি বেচাকেনার মাধ্যমে পুষিয়ে নিতে চেষ্টা করেন মালিকরা। 

দুপুরের পর হোটেল-রেস্টুরেন্টের সামনে পেতে রাখা টেবিল নানা স্বাদের রকমারি ইফতারের আইটেমে ভরে ওঠে। আর খাদ্য তালিকায় ছোলা, পেঁয়াজু, বেগুনির মতো গতানুগতিক পদের পাশাপাশি থাকে নানা রকম কাবাব, হালিম, তেহারি, মাংসের গ্রিলসহ অনেক কিছু।

এবার রোজার শুরুতেই এসব হোটেল-রেস্টুরেন্টের পাশাপাশি শহরের হাসপাতাল মোড়, চিত্রা মোড়, খাজুরা বাসস্ট্যান্ড, মনিহার সিনেমা হল চত্বর, চাঁচড়া মোড়, উকিলবার মোড়ে বসেছে অস্থায়ী ইফতারের দোকান। এসব দোকানে আলু, রসুন, কলিজা, মাংসের কিমা, ডিম, মাশরুমের চপের পাশাপাশি ছোলা, পেঁয়াজু, বেগুনি, ফুলরি বিক্রি হয়।

শহরের চিত্রা মোড় এলাকার খাবার দোকান নিউ স্টার হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট ও ক্যাফে মদিনা। রমজান উপলক্ষে এখানে ছোলা, বেগুনি, পিঁয়াজু, আলুর চপের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের কাবাব ও গ্রিল পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন এর স্বত্বাধিকারী মঈন চৌধুরী।

শহরের তালবাজারে মৌসুমি দোকানে ইফতার কিনতে আসেন আসাদ আসাদুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘বাড়িতে ইফতার বানানো হয়। তবে সব পদ বাড়িতে বানানো সম্ভব নয়। সেজন্য বাইরে থেকে কিনে নিয়ে যাচ্ছি। তাছাড়া শহরের বড় দোকানে যা পাওয়া যায়, পাড়া-মহল্লার ছোট দোকানে প্রায় মেলে। তাই এসব দোকান থেকেই কেনাকাটা করে থাকি’।

এসব দোকান ছাড়াও রোজাদারদের ভিড় থানা মোড়, দড়াটানাসহ বিভিন্ন এলাকার ফলের দোকানে। এসব দোকান থেকে তরমুজ, বাঙ্গি, শসা, লিচু, খেজুর, আপেলসহ বিভিন্ন মৌসুমি ফল কিনে ইফতার টেবিলে পদ বাড়িয়ে থাকেন অনেকে। এবার তরমুজ ও খেজুরের চাহিদা বেশি বলে জানান বিক্রেতারা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads