• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
সস্তায় এসইউভি, এক মাসেই বুকিং ১০ হাজার

সংগৃহীত ছবি

অর্থ ও বাণিজ্য

সস্তায় এসইউভি, এক মাসেই বুকিং ১০ হাজার

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ব্রিটিশ গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা এমজি হেক্টরের যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯২৪ সালে। শুরুর দিন থেকেই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেকে নানান বিখ্যাত সেলেবের বাড়ির গ্যারেজে দেখা মিলত এমজি স্পোর্টস এবং এসইউভিগুলোর। সময় বদলানোর সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তন এসেছে এমজির স্টাইল ও প্রযুক্তিতে। এমজি তাদের নতুন প্রযুক্তির মাধ্যমে ইন্টারনেটযুক্ত ‘ইন্টেলিজেন্ট ড্রাইভিং টেকনোলজি’ এনেছে বাজারে, যা গাড়ি চালানোর সময় দেয় এক অনন্য অভিজ্ঞতা।

নতুন প্রযুক্তির এই স্মার্ট গাড়ি বিভিন্ন দেশ ঘুরে শেষমেশ পা রাখছে ভারতের মাটিতে। ভারতীয় ক্রেতাদের মধ্যে আগ্রহ তৈরি করতে দেওয়া হচ্ছে আকর্ষণীয় ছাড়ও। ভারতীয় গ্রাহকদের জন্য অল্প বাজেটে বেশি ফিচারযুক্ত গাড়ি হিসেবেই এমজি হেক্টরকে পরিচিত করতে চায় প্রস্তুতকারক সংস্থাটি। এমজি হেক্টরের দাম ধার্য করা হয়েছে ১২.১৮ থেকে ১৬.৮৮ লাখ টাকার মধ্যে (এক্স শোরুম দাম)। জুন থেকে এই গাড়ির অগ্রিম বুকিং শুরু হওয়ার পর, এক মাসের মধ্যেই ১০ হাজারের বেশি গাড়ি বুক করা হয়, যা প্রায় অবিশ্বাস্য। সারা ভারতে ১২০টি সেন্টার থেকে হেক্টর যাত্রা শুরু করলেও সেপ্টেম্বরের মধ্যেই তা ২৫০টি সেন্টারে পরিণত হবে বলে জানিয়েছে সংস্থা। এমজি মোটর ইন্ডিয়ার পরিচালক রাজীব ছাবা বলেন, এটিই এমজির প্রথম গাড়ি যা ভারতে মুক্তি পাচ্ছে। এই গাড়িতে থাকছে ‘এমজি শিল্ড’, যা ক্রেতাদের সুরক্ষা বজায় রাখা ছাড়াও অনেক দিক থেকে সাহায্য করবে। আমাদের গাড়িতে থাকছে অনন্য ডিজাইন, বিশ্বমানের সুরক্ষা ব্যবস্থা। এর দামও সাধ্যের মধ্যে হওয়ায় এমজি হেক্টর কিছুদিনের মধ্যেই ভারতীয় ক্রেতাদের প্রথম পছন্দ হয়ে উঠবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

এমজি হেক্টরের টার্বোচার্জড পেট্রল ইঞ্জিন ২৫০ নিউটন মিটারের সর্বোচ্চ টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। অন্যদিকে এর টার্বোচার্জড ডিজেল ইঞ্জিন সর্বোচ্চ ৩৫০ নিউটন মিটার অবধি টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। অটমোটিভ রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, এর পেট্রল ও ডিজেল ইঞ্জিন-উভয়ই জ্বালানি বাঁচাবে বাকি গাড়ির তুলনায় অনেকটাই। এমজি হেক্টরে থাকছে ২৫টি স্ট্যান্ডার্ড সেফটি ফিচার। এর ১০.৪ ইঞ্চির এইচডি টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে ‘আইস্মার্ট’ অপশনে পরিচালিত হবে। এছাড়া থাকবে অ্যান্ড্রয়েড অটো ও অ্যাপল কারপ্লের কানেক্টিভিটির অপশনও। এই গাড়ির মুখ্য ফিচারগুলো হলো এলইডি-ডে টাইম রানিং লাইট, প্যানোরামিক সানরুফ, ৩৬০ ডিগ্রি ক্যামেরা, ক্রুজ কন্ট্রোল ইত্যাদি। চালককে তার সিট অ্যাডজাস্ট করার জন্য আর নিজেকে পরিশ্রম করতেও হবে না। কারণ এর সিটগুলো ইলেকট্রিকালি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে এবং চালকের সুবিধামতো তা অ্যাডজাস্ট করে নেওয়া যাবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads