• বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
নাটকটিতে গল্প আছে, নির্মাতার মেধা আছে

‘আবার তোরা মানুষ হ’-নাটকে আরফান নিশো

সংগৃহীত ছবি

আনন্দ বিনোদন

নাটকের রিভিউ

নাটকটিতে গল্প আছে, নির্মাতার মেধা আছে

আবার তোরা মানুষ হ

  • প্রকাশিত ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

রাফিউজ্জামান রাফি

আজকাল যখন দর্শক ধরে রাখতে মিউজিক ভিডিও থেকে শুরু করে নাটক সিনেমার পরিচালকরা পর্দার প্রতিটি মিনিটকে জমকালো করতে কত অর্থ, কত গ্ল্যামার খরচ করেন সেখানে একদম গ্ল্যামারহীন সাদামাটা একটি নাটক সেদিন আমাকে শুরু থেকে শেষ সময় পর্যন্ত শুধু বসিয়েই রাখেনি বরং শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত নাটকটি আবার আমাকে দেখতে বাধ্য করছে। নাটকটি এবার ঈদ উপলক্ষে মুক্তি পেয়েছে। নাটকটির নাম ‘এবার তোরা মানুষ হ’। মাবরুর রশীদ বান্না পরিচালিত এই নাটকটি একটি শ্রেণিকক্ষের  ভেতরেই শুরু থেকে শেষ হয়েছে। এতে নেই কোনো চাকচিক্য। ছিল না কোনো ভাঁড়ামো, ছিল না এডিটরের কোনো কারিশমা বা বিশাল বাজেটের আয়োজন। প্রশ্ন জাগতে পারে, কিছুই নেই, তবে কীভাবে এটা করা সম্ভব হয়েছে? এর উত্তর হলো নাটকটিতে একটি সুন্দর গল্প আছে, নির্মাতার মাথায় মেধা আছে।

নাটকটিতে দেখা যায়, একজন অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক টিনের ঘরের একটি শ্রেণিকক্ষে বসে প্রতিদিন তার ছাত্রদের উদ্দেশে চিঠি লেখেন। অবশেষে এক দিন তার বিভিন্ন বয়সী ১১ জন শিক্ষার্থী তাদের প্রিয় শিক্ষকের ডাকে সাড়া দিয়ে ওই শ্রেণিকক্ষে এসে উপস্থিত হয়। তাদের কেউ ডাক্তার, কেউ চিত্রনায়ক, ছাত্রনেতা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী, আবার একজন সন্ত্রাসী। শিক্ষক এই ১১ পেশার ১১ জন শিক্ষার্থীর সামনে চেয়ার টেবিল পেতে বসেন। একে একে কথা বলতে থাকেন ১১ জনের সঙ্গে। তিনি কথা বলেন তাদের পেশাগত অসততা ও নৈতিক অবক্ষয় নিয়ে। ঠিক এখান থেকেই যেন নাটকের চুম্বকাংশের শুরু। এখানেই পরিচালকের মুনশিয়ানার পরিচয় শুরু। এদেশের রন্ধ্রে রন্ধ্রে যে দুর্নীতি বাসা বেঁধেছে, এই ১১ জন শিক্ষার্থীকে শিক্ষকের জেরার সামনে দাঁড় করিয়ে নির্মাতা বান্না নিপুণভাবে তা দেখাতে সক্ষম হয়েছেন। সাংবাদিকতা, ডাক্তারি, রাজনীতি, শিক্ষা, প্রশাসন নামক পেশাগুলোর নামে যে স্বার্থোদ্ধারে সবাই ব্যস্ত, পেশাগুলো তাদের আদর্শের জায়গা থেকে সম্পূর্ণ বিচ্যূত নির্মাতা সেটাই বোঝাতে চেয়েছেন এবং সক্ষম হয়েছেন। নির্মাতা যেন একটি শ্রেণিকক্ষে সমগ্র দেশের বর্তমান হালচাল, নীতি-নৈতিকতার অবক্ষয়ের চিত্র সফলতার সঙ্গে তুলে ধরেছেন। ভালো গল্পের আকালের দিনে এমন নাটক আমাকে আপ্লুত করেছে।

নাটকটিতে বৃদ্ধ শিক্ষক চরিত্রে আরফান নিশোর অভিনয় ছিল দেখার মতো। নিশো যে আসলেই একজন অভিনেতা, তার মাঝে যে আসলেই বহুমুখী চরিত্রে অভিনয়ের গুণ রয়েছে সেটা প্রমাণ করেছেন। সম্পূর্ণ গল্প তার অসাধারণ অভিনয় দক্ষতায় বাস্তবভাবে ফুটে উঠেছে। বর্তমানে সবাই যখন দর্শক ধরতে বেছে নিচ্ছেন ভাঁড়ামো, আতলামো, চুলকানির সস্তা গল্পগুলো, নির্মাতা বান্না সেখানে বেছে নিয়েছেন দেশের বর্তমান হালচালের একটি বাস্তব চিত্র। বান্না মেধাবী নির্মাতা বলেই চিরচেনা টুকরো অবক্ষয়গুলো এত নিপুণভাবে সমন্বয় করে উপস্থাপন করতে পেরেছেন। সব শেষে বলব ‘এবার তোরা মানুষ হ’ নাটকটি না দেখলে সেটা হবে দর্শকদের ব্যর্থতা, নির্মাতার না।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads