• সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮, ৭ কার্তিক ১৪২৫
ads
ভালো গল্পের অপেক্ষায় থাকি

জাকিয়া বারী মম

সংগৃহীত ছবি

আনন্দ বিনোদন

ভালো গল্পের অপেক্ষায় থাকি

  • সোহেল অটল
  • প্রকাশিত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

জাকিয়া বারী মম। একসঙ্গে ছোট ও বড়পর্দায় অভিনয় করে যাচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে। সম্প্রতি তার অভিনীত ‘স্বপ্নের ঘর’ ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। এ ছবি ও অন্যান্য বিষয়ে মমর সঙ্গে কথা বলেছেন সোহেল অটল

‘স্বপ্নের ঘর’ ছবির শুটিং শুরু হয়েছিল ‘স্বপ্নবাড়ি’ নামে। নাম পরিবর্তনের কারণ কী?

হ্যাঁ, ছবিটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ‘স্বপ্নবাড়ি’ নামেই এগিয়েছে। গল্পের সঙ্গেও এ নামের মিল ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে নিবন্ধন সংক্রান্ত জটিলতার কারণে নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। যতদূর জানি, প্রযোজকের পছন্দমতো ‘স্বপ্নের ঘর’ রাখা হয়েছে। এ নামেই সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে।

কোন ধরনের গল্পের ওপর ভিত্তি করে ছবিটি নির্মাণ হয়েছে?

মূলত সাইকো থ্রিলার গল্প। এর বাইরে প্রেম ও সমাজের গল্পও চিত্রিত হয়েছে।

ছবি মুক্তির সম্ভাব্য তারিখ সম্পর্কে কিছু জানেন?

এটা ঠিক বলতে পারব না। পরিচালক ভালো বলতে পারবেন। তবে যতদূর শুনেছি মুক্তির তারিখ এখনো নির্ধারণ হয়নি। খুব শিগগিরই পরিচালক-প্রযোজক সুবিধাজনক একটা তারিখ ঠিক করবেন।

সাইকো থ্রিলার গল্পের চলচ্চিত্রে অভিনয় করে কেমন লেগেছে?

অবশ্যই নতুন অভিজ্ঞতা। কারণ, এ ধরনের গল্প নিয়ে এ দেশে খুব একটা চলচ্চিত্র নির্মাণ হয়নি। আমার কো-আর্টিস্ট যারা ছিলেন, তাদের সঙ্গে অভিনয় করেও ভালো লেগেছে। আনিসুর রহমান মিলন, শিমুল খান, কাজী নওশাবা— প্রত্যেকেই ভালো শিল্পী।

চলচ্চিত্রে কম অভিনয় করছেন। কারণ কী?

নির্দিষ্ট কোনো কারণ নেই। সার্বিকভাবেই চলচ্চিত্রাঙ্গনে অস্থিরতা বিরাজ করছে। ভালো গল্প, ভালো নির্মাণের অপেক্ষায় থাকি সব সময়। সুযোগ পেলে অভিনয় করি। এখানে আমার নিজের ইচ্ছায় কম-বেশি অভিনয়ের ব্যাপার তেমন একটা থাকে না।

 

নাটক নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠেছে, মানুষ টিভিতে নাটক দেখছে না। তাহলে টিভির জন্য নির্মিত নাটকে কাজ করে তৃপ্তি পাচ্ছেন?

এই প্রশ্নটা অনেক দিন ধরে আছে। তবে এর সঙ্গে আমি একমত না। আমি মনে করি মানুষ অবশ্যই টিভিতে নাটক দেখছে। যদি কেউ না দেখে থাকে, তাহলে বিকল্প অনেক মিডিয়া আছে। ইউটিউব আছে। মানুষ সেখান থেকে নাটক দেখছে। সুতরাং কাজ করে তৃপ্তি না পাওয়ার কোনো কারণ নেই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads