• শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
প্রিন্স বাজার

প্রিন্স বাজারের লোগো

ছবি সংরক্ষিত

ফিচার

প্রিন্স বাজার

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০১ জুলাই ২০১৮

রিমঝিম বর্ষায় দুরন্ত অফার চলছে এখন প্রিন্স বাজারে। নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্যের ওপর এই অফার। ২৮ জুন থেকে শুরু হওয়া এই অফারটি চলবে ৯ জুলাই পর্যন্ত। কয়েক দিন আগেও এই বাজারে ঈদ অফার, রমজান অফার, ধামাকা অফার শেষ হয়েছে। নিত্যনতুন অফারের মাধ্যমে এভাবে সারা বছরই ক্রেতাদের আকৃষ্ট করে প্রিন্স বাজার। ‘প্রয়োজনের সবকিছু একই ছাদের নিচে’- এই স্লোগানকে সামনে রেখেই পথ চলছে সুপার শপ প্রিন্স বাজার। ১৯৮৪ সালে বাংলা খাবারের সাধারণ এক রেস্টুরেন্ট থেকে এর যাত্রা শুরু। তারপর ‘প্রিন্স বেকারি’। এভাবে পরিসর বাড়তে বাড়তে ২০০৫ সালে ‘প্রিন্স বাজার’ নামে একটি সুপার শপ চালু করা হয়। বাংলাদেশের অর্থনীতি এবং সামাজিক প্রেক্ষাপটের বিবেচনায় যাদের নিঃসন্দেহে আধুনিক সুপার শপ বলে ফেলা যায়। শাকসবজি থেকে শুরু করে মাছ-মাংস; জামাকাপড় থেকে বিখ্যাত ব্র্যান্ডের লিপস্টিকসহ প্রয়োজনের হাজারো সরঞ্জাম রয়েছে একই ভবনে। মিরপুর আউটলেটের মাধ্যমে প্রিন্স বাজারের যাত্রা। মিরপুর ছাড়াও মোহাম্মদপুরের জাপান গার্ডেন সিটির বিপরীত পাশে এই সুপার শপের একটি চেইন শপ রয়েছে। সপ্তাহের সাত দিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই শপের প্রত্যেকটি শাখা খোলা থাকে। প্রিন্স বাজারের বিভিন্ন শাখায় কসমেটিকস, শোপিস, ফ্যান্সি আইটেম, গ্রোসারি, স্টেশনারি, বেবি ফুড, ক্রোকারিজ, ড্রিঙ্কস, ড্রাইফুড, খেলনা, ফাস্টফুড, সুইটমিট, গার্মেন্ট, হারবাল পণ্য, ফ্রোজেন ফুডস, শাক-সবজি, ফলমূল, নিজস্ব উৎপাদিত চাল, আটা, গরু ও খাসির মাংস এবং রুই, চিংড়ি, কাতলা, ইলিশ, রূপচাঁদা ছাড়াও দেশি প্রজাতির ছোট মাছও পাওয়া যায়।  ক্রেতার চাহিদা মতো প্রিন্স বাজারে মাছ-মাংস কেটে দেওয়া হয়।

এখানে ভিসা কার্ড, মাস্টার কার্ড, আমেরিকান এক্সপ্রেস কার্ডসহ দেশের সব ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমেও বিল পরিশোধ করা যায়। ক্রেতাদের জন্য মেম্বারশিপ কার্ডও রয়েছে। মেম্বারদের জন্য সাধারণ ক্রেতার বাইরে বাড়তি কিছু সুবিধা দিয়ে থাকে প্রিন্স বাজার। পণ্য সম্পর্কে তথ্য দিয়ে সাহায্য করে গাইডরা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads