• শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
কোরবানি ঈদে থাকুন স্বাস্থ্যসচেতন

যেখানে-সেখানে পশুর হাড্ডি-মাংস ফেলবেন না

সংগৃহীত ছবি

ফিচার

কোরবানি ঈদে থাকুন স্বাস্থ্যসচেতন

  • কামরুল আহসান
  • প্রকাশিত ১৬ আগস্ট ২০১৮

কোরবানি ঈদ দোরগোড়ায়। এর মধ্যেই গরু আসতে শুরু করেছে পশুর হাটগুলোতে। দুদিনের মধ্যেই সেগুলো বাড়িতে চলে আসবে। শহরের অনেকেরই গরু-ছাগল দেখেশুনে রাখার অভ্যাস নেই। গরু-ছাগলের প্রস্রাব-পায়খানা নোংরা করবে বাড়ির আশপাশ। সেগুলো অবশ্যই সবসময় পরিষ্কার করে রাখতে হবে। কোথাও যেন গোবরের দাগ লেগে না থাকে। তাতে পরে দুর্গন্ধ ছড়ায়। সে দুর্গন্ধে বাড়ে মশা-মাছির উৎপাত, ছড়ায় অনেক রোগ-জীবাণু। বেশি সাবধান হতে হবে কোরবানির পর। রক্ত ভালো করে ধুয়ে ফেলতে হবে। যেখানে-সেখানে পশুর হাড্ডি-মাংস ফেলবেন না। তাতে কুকুর এসে হানা দেবে ঘরের কাছে। শিশুদেরও তাতে ক্ষতি হতে পারে যেকোনো মুহূর্তে।

মাংস খাওয়ার ব্যাপারেও সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোরবানি ঈদ উপলক্ষে আমাদের বিশিষ্ট ডাক্তারের কিছু পরামর্শ থাকল মেনে চলার জন্য। আর ঈদে বেড়াতে গিয়েও সাবধানে থাকুন। আত্মীয়ের বাড়ি বেড়াতে গেলে অনেকে জোর করে খাওয়ান, নিজের পরিমাপ খেয়াল রাখুন। এমনিতেই গরমকাল। মাংস খেয়ে তা যেন ভালোভাবে হজম হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। রাস্তাঘাটে সাবধানে চলুন। শিশু ও বৃদ্ধদের প্রতি বাড়তি যত্ন নিন। আমরাই পারি আমাদের সুস্থ রাখতে। আমাদের একটু অবহেলা যেকোনো মুহূর্তে ডেকে আনতে পারে বড় বিপদ। পরিবারের কেউ অসুস্থ হয়ে গেলে কারো জন্যই ঈদ আনন্দময় হয় না। কোরবানি ঈদ মানেই আমাদের দেশে অসুস্থ মানুষের হিড়িক পড়ে যাওয়া। হাসপাতালগুলো ভরে ওঠে অসংখ্য রোগীতে। শিশু থেকে বৃদ্ধ কেউ বাদ যান না। এর কারণ একমাত্র অসচেতনতা। নিয়ম মেনে না চলা। সচেতন থাকুন সবাই মিলে সুস্থ থাকতে। আমাদের পক্ষ থেকে সবার জন্য থাকল ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads