• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads

ফিচার

টাকার যত বিড়ম্বনা

  • মনিরা তাবাস্সুম
  • প্রকাশিত ১১ নভেম্বর ২০১৮

বাজারে নতুন নোট চালু হলেই তা সংগ্রহের বাতিক আছে অনেকের। সবার আগে নতুন টাকা সংগ্রহ করে সবাইকে দেখিয়ে বেড়াতেও পছন্দ করেন অনেকে। কিন্তু নতুন প্রচলিত এসব টাকার কিছু কিছু অন্য নোটের সঙ্গে কখনো রঙ কখনো আকৃতির সঙ্গে মিল থাকায় প্রায়ই বিড়ম্বনার শিকার হতে হয় আমাদের। এই বিড়ম্বনা এড়াতে নোট আর কয়েনের পরিবর্তন তৈরি করছে নতুন বিভ্রান্তির। দুই টাকার কয়েন থেকে শুরু করে পাঁচশ টাকার নোট পর্যন্ত বিভ্রান্তির সৃষ্টি করে। দুই টাকার কয়েন ও পাঁচ টাকার কয়েনের পুরুত্ব এক হওয়ায় চারপাশে খাঁজ কাটা থাকলেও প্রায়ই দুই টাকার কয়েনের সঙ্গে পার্থক্য করা কঠিন হয়ে যেত। পরে দুই টাকার কয়েনটি পাতলা করা হয়। কিন্তু তাতেও বিশেষ সুবিধা হয়নি। বরং তখন তা এক টাকার কয়েনের সঙ্গে মিলে যায়। কয়েনের দিক তাকিয়ে খেয়াল না করলে বোঝার উপায় নেই কোনটা কত টাকার কয়েন। ঠিক তেমনি বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয় বিভিন্ন মূল্যমানের টাকার মধ্যেও। যেমন ৫ টাকার নোট ও ৫০ টাকার নোট দেখতে যেমন, তেমনি আকৃতিতেও এক। ঠিক একইভাবে ২০ টাকার নোটের রঙ এবং ৫০০ টাকার নোটের রঙ এক হওয়ায় মাঝে মাঝে তাড়াহুড়ো বা অসাবধানতাবশত ২০ টাকার জায়গায় ৫০০ টাকা আর ৫০০ টাকার জায়গায় ২০ টাকা দেওয়া হয়ে যায়। নোটের রঙের এই বিভ্রান্তির কারণে সৃষ্ট বিড়ম্বনার ঘটনা ঘটছে অহরহ। তাসলিমা বেগম গৃহিণী, বাসার বাজারসদাই সবকিছু নিজ হাতেই করেন তিনি। সেদিন নানা ধরনের সদাই করে বাড়ি ফেরার সময় পথে রিকশা থামিয়ে বিশ টাকায় দুই আঁটি শাক কিনেছিলেন। বাসায় গিয়ে কিছুতেই বাজারের হিসাব মেলাতে পারছেন না। হিসাব বলে ব্যাগে আরো পাঁচশ টাকা থাকার কথা কিন্তু হাত তার শূন্য। তখন অনেক ভেবেচিন্তে বুঝতে পারলেন দোকানিকে বিশ টাকার জায়গায় পাঁচ টাকার নোট দিয়ে এসেছেন।

প্রিয়া পড়েছিলেন অন্যরকম বিড়ম্বনায়। সেদিনের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে বললেন, সেদিন যে কী লজ্জায় পড়ে গিয়েছিলাম! দোকানে বিকাশ করতে গিয়ে দোকানিকে পাঁচশ টাকার জায়গায় বিশ টাকা দিয়েছিলাম। দোকানি বার বার বলার চেষ্টা করলেও আমি মানছিলাম না যে আমি বিশ টাকার নোট দিয়েছি। শেষ পর্যন্ত লোকটি আমাকে পাঁচশ টাকা এবং বিশ টাকার নোট পাশাপাশি রেখে বোঝাতে সক্ষম হয়েছিলেন যে আমি তাকে বিশ টাকার নোটই দিয়েছিলাম। সেদিন যে কী লজ্জায় পড়েছিলাম!

চারপাশে খোঁজ করলে টাকায় টাকায় মিল থাকার কারণে এমন বিভ্রান্তির অনেক ঘটনাই পাওয়া যাবে। নোটের রঙের এমন সাদৃশ্য তাই প্রায়ই বিড়ম্বনায় ফেলে কাউকে না কাউকে।   

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads