• রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬
ads
বৈশাখে হাতের যত্ন

ছবি : সংগৃহীত

ফিচার

বৈশাখে হাতের যত্ন

  • এস. এম. আতিয়া
  • প্রকাশিত ২২ এপ্রিল ২০১৯

বৈশাখ মানেই হাতভর্তি রেশমি চুড়ি। শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ যেটাই হোক না কেন, সাথে চুড়ি থাকবেই। আর চুড়ি মানেই হাতের প্রদর্শন। তাই হাতের সৌন্দর্যের দিকে একটু খেয়াল রাখতে হবে তাই না? তাছাড়া আমাদের শরীরের কোন অঙ্গের ত্বক সবচাইতে বেশি ঝড়ঝাপটা সহ্য করে জানেন? তা হলো আমাদের হাতের ত্বক। সারাদিন সব কাজে আমাদের হাত দুটি থাকে সচল। কিন্তু মুখের যতটা যত্ন নিই, হাতের ততটা যত্ন মনে হয় আমরা কেউই নিই না। অথচ হাতের ত্বকেই সবার আগে বয়সের ছাপ দেখা যায়। কাজ, সূর্যের আলো, ঝড়-জল সব সামলে চললেও হাতের দিকে মনোযোগ থাকে না কারোরই। ভাবি, ধুর! হাতের পেছনে এত সময় কে দেবে? না, মোটেই বেশি সময় দরকার নেই। খুব সহজ কিছু কৌশলে কম সময়ই নিতে পারবেন হাতের যত্ন। জেনে নিন উপায়গুলো। লিখেছেন এস. এম. আতিয়া

 

হাত ধুতে হবে যত্ন করে

সুস্থ থাকার জন্য নিয়মিত হাত ধোয়ার বিকল্প নেই। তবে হাত ধোয়ার সময় কিছু কাজ উল্টো হাতের ক্ষতি করতে পারে। খুব বেশি ধরে ধোয়ামোছায় হাত হয়ে পড়ে রুক্ষ। এছাড়া বেশি ক্ষারযুক্ত সাবান এবং গরম পানি দিয়ে হাত ধুলে হাতের ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। শীতকালে হাত ধোয়ার সময় আরো বেশি সাবধান থাকা উচিত। এ সময় ব্যবহার করতে পারেন মাইল্ড কোনো সাবান। হাত ধোবেন ঠান্ডা অথবা হালকা গরম পানিতে।

হাতের কাছেই রাখুন হ্যান্ড ক্রিম

হাতে ব্যবহারের জন্য আলাদা ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম বা লোশন পাওয়া যায়, যেগুলো বিশেষ করে হাতের ত্বকের জন্য তৈরি। বিভিন্ন কাজে হাতের যে ক্ষতি হয় তা সারিয়ে তুলতে পারে এই ক্রিম। পাশাপাশি হাতকে সুরক্ষাও দিয়ে থাকে। এসব ক্রিমে যেন সানস্ক্রিন থাকে, তার দিকে লক্ষ রাখুন। নিজের বাড়িতে তো বটেই, ব্যাগেও রেখে দিন এক কৌটা ক্রিম। প্রতিবার হাত ধোয়ার পর হাতে লাগিয়ে নিন।

রুক্ষ ত্বকের যত্ন

অনেকেরই ত্বক রুক্ষ থাকে। এই রুক্ষ ত্বকের ক্ষতি সারাতে খুব ভালো কাজ করে অলিভ অয়েল। রাতে অলিভ অয়েল ম্যাসাজ করে ঘুমাতে যেতে পারেন। অথবা ব্যবহার করতে পারেন চিনি ও অলিভ অয়েলের একটি স্ক্রাব। সিকি চা চামচ চিনি ও সিকি চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে হাতের পিঠে ম্যাসাজ করতে পারেন সপ্তাহে একবার। এতে ত্বক মসৃণ হয়ে আসবে।

ব্যবহার করুন গ্লাভস

অনেক রকমের কাজেই আমাদের হাতের ক্ষতি হতে পারে। বাসনকোসন ধোয়া, কাপড় ধোয়া, ঘর মোছা এসব কাজে হাত অনেকক্ষণ ভিজে থাকে ফলে হাতের ত্বক রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। এছাড়া চুলে ডাই দেওয়ার মতো কাজেও রাসায়নিকের কারণে হাতের ক্ষতি হতে পারে। এমন কাজ করার সময় হাতে গ্লাভস পরে থাকার চেষ্টা করুন।

ম্যানিকিউর

নিয়মিত ম্যানিকিউর করি না আমরা অনেকেই। বাসায় করাটাও সবার পক্ষে সম্ভব হয় না। তবে যতটা সম্ভব নখ ও হাতের ত্বকের যত্ন নিন। নখ কামড়াবেন না। নখ যদি বিবর্ণ হয়ে পড়ে তবে কিছুদিন নেইল পলিশ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। সম্ভব হলে নখেও ব্যবহার করুন ময়েশ্চারাইজার।

এগুলো তো হলো বাইরে থেকে হাতের যত্ন। কিন্তু ভেতর থেকেও হাত যত্নে রাখার জন্য নিজেকে রাখুন সুস্থ। পুষ্টিকর খাবার খান এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন অভ্যাস করুন। হাত হয়ে উঠবে কোমল ও মসৃণ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads