• বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫
ads

লাল শাক

সংরক্ষিত ছবি

খাদ্য

লালশাকের যত গুণ

  • ফয়জুন্নেসা মণি
  • প্রকাশিত ০৮ মে ২০১৮

শরীরের জন্য লালশাক যে ভালো তা আমরা কমবেশি সবাই জানি। লালশাক খেতে যেমন সুস্বাদু, মানবদেহের সুস্থতায়ও এর গুরুত্ব অনেক। লালশাক দেহের রক্তশূন্যতা রোধ করে। জ্বর সারাতে লালশাকের উপকারিতা অনেক বেশি। জ্বরের সময় লালশাক ভাজি প্রতিদিন খেলে তাপ ধীরে ধীরে কমে যাবে। লালশাকে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, যা চোখের দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে খুবই কার্যকর।

লালশাকে আছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন। কিডনি ভালো ও পরিষ্কার রাখতে লালশাকের জুড়ি নেই। চুলের স্বাস্থ্যের জন্যও লালশাক খাওয়া ভালো। এতে চুলের গোড়া মজবুত হয় এবং চুলে মিনারেল ও পুষ্টি জোগায়। সন্তান জন্ম দেওয়া নারীর জন্য লালশাক খুব কার্যকর। লালশাক দিয়ে জুস বানিয়েও খাওয়া যায়। ডিম, মধু, লেবুর রস ও লালশাক একসঙ্গে ব্লেন্ড করে পেস্ট বানিয়ে পানির সঙ্গে মিশিয়ে খেলে শরীরের জন্য খুবই উপকারী।

চুলের যত্নে লালশাক খুবই উপকারী। লালশাক ও লবণ একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে ছেঁকে রস সংরক্ষণ করতে হবে। এরপর ওই রস চুলের গোড়ায় তেলের মতো করে দিয়ে কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে নিন। এই জুস সপ্তাহে ২-৩ বার ব্যবহার করলে চুল পড়া বন্ধ হবে। পাশাপাশি চুলের উজ্জ্বলতাও বাড়বে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads