• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
ads

সরকার

এমপিদের নয়া আবদার

‘সার্ক স্টিকারের’ মেয়াদ পাঁচ বছর করতে তোড়জোড়

  • সাইদ আরমান
  • প্রকাশিত ০৬ নভেম্বর ২০১৯

একজন সংসদ সদস্যের (এমপি) প্রভাবের শেষ নেই। তিনি তার এলাকায় সবচেয়ে ক্ষমতাশালী ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। পদাধিকারবলে তারা পেয়ে থাকেন নানা ধরনের রাষ্ট্রীয় ও সরকারি সুযোগ-সুবিধা। তবে সংসদ সদস্যদের জন্য এবার ভিন্ন ধরনের আবদার তোলা হয়েছে। তাদের জন্য সার্ক ভিসা স্টিকারের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য তোড়জোড় চলছে। সূত্রগুলো বলছে, এরই মধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে এ ব্যাপারে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে উদ্যোগ নিতে। মন্ত্রণালয় বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে। পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য সংসদ সদস্য, সাংবাদিক, ব্যবসায়ীসহ ২২টি ক্যাটাগরিতে ভিসা অব্যাহতি স্টিকার দেওয়া হয়ে থাকে। এর ফলে সার্ক অঞ্চলের আটটি দেশে তাদের ভিসার প্রয়োজন হয় না। এ বিষয়টি সার্কের সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সার্ক সচিবালয় দেখভাল করে থাকে। বাংলাদেশে একজন সংসদ সদস্য বেতন-ভাতাসহ নানা সুযোগ সুবিধা ভোগ করেন। থাকে নানা ধরনের ক্ষমতা। দেশের বিদ্যমান আইন মোতাবেক একজন সংসদ সদস্য মাসিক বেতন ৫৫ হাজার  টাকা। নির্বাচনী এলাকার ভাতা প্রতি মাসে সাড়ে ১২ হাজার টাকা। সম্মানী ভাতা প্রতি মাসে ৫ হাজার টাকা। শুল্কমুক্তভাবে গাড়ি আমদানির সুবিধা পেয়ে থাকেন। মাসিক পরিবহন ভাতা ৭০ হাজার  টাকা। নির্বাচনী এলাকায় অফিস খরচের জন্য প্রতি মাসে ১৫ হাজার টাকা। প্রতি মাসে লন্ড্রি ভাতা দেড় হাজার টাকা। মাসিক ক্রোকারিজ, টয়লেট্রিজ কেনার জন্য ভাতা ৬ হাজার টাকা। দেশের অভ্যন্তরে বার্ষিক ভ্রমণ খরচ ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। স্বেচ্ছাধীন তহবিল বাবদ পেয়ে থাকেন বার্ষিক পাঁচ লাখ টাকা। সংসদ সদস্যরা বাসায় টেলিফোন ভাতা বাবদ প্রতি মাসে ৭ হাজার ৮০০ টাকা পেয়ে থাকেন। সংসদ সদস্যদের জন্য সংসদ ভবন এলাকায় এমপি হোস্টেল আছে। এর বাইরেও প্রতিবছর থোক বরাদ্দ থাকে। চলতি অর্থবছরে এ বরাদ্দের পরিমাণ একজন সংসদ সদস্যের জন্য চার কোটি টাকা।

দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, দাবির যৌক্তিকতা যাচাই করতে হবে। যদি মনে করা হয় এটি সঠিক দাবি, তাহলে দেওয়া যেতে পারে। তবে এর মেয়াদ সর্বোচ্চ ৫ বছর হতে পারে। যেদিন থেকে ইস্যু করা হবে, সেদিন থেকে সর্বোচ্চ ৫ বছর। তবে দেখতে হবে তাদের মেয়াদ কত দিন আছে। স্টিকার ইস্যুর দিন থেকে সংসদের শেষ কার্যদিবস শুল্কমুক্ত গাড়ি এনে তা উচ্চ দামে এক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেওয়ায় বিএনপির সাংসদ হারুনুর রশীদকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড এবং ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন বিচারিক আদালত। বর্তমান সংসদে বিএনপির যে ছয়জন সাংসদ আছেন, তিনি তাদের একজন। কিন্তু যে গাড়ির জন্য তার সাজা হয়েছে, সেটি আনা হয়েছিল ২০০১-০৬ মেয়াদে, অষ্টম সংসদে। নবম, দশম সংসদ পার হয়ে এখন একাদশ সংসদ চলছে। হারুনুর রশীদকে শেষ পর্যন্ত জেল যেতে হয়েছে। কিন্তু শুল্কমুক্ত গাড়ির মামলার চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হয়নি। সাংসদ হারুনুর রশীদ হাইকোর্টে রিট করে ছয় মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেয়েছেন। উচ্চ আদালত তার জরিমানাও স্থগিত করেছেন।

বর্তমানে একজন সংসদ সদস্য এক বছরের জন্য সার্ক স্টিকার পেয়ে থাকেন। বিষয়টি সম্পর্কে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসনকে কয়েক দফা ফোন করলেও তিনি কল রিসিভ করেননি। পরে নাম-পরিচয় জানিয়ে এসএমএস করা হয়। তাতেও তিনি সাড়া দেননি। একই সঙ্গে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এইচ এন আশিকুর রহমানকেও ফোন করলে তিনি ধরেননি।

সংসদ সদস্যদের আরো নানাবিধ প্রভাব রয়েছে। আইন অনুযায়ী নির্ধারিত বেতন-ভাতা পাওয়ার পাশাপাশি একজন সংসদ সদস্য তার নির্বাচনী এলাকায় সবচেয়ে ক্ষমতাশালী হিসেবে পরিচিত হয়ে ওঠেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সংবিধান অনুযায়ী সংসদ সদস্যদের ক্ষমতা হচ্ছে আইন প্রণয়নে ভূমিকা রাখা। কিন্তু এ ক্ষমতাটি ক্রমাগতভাবে প্রশাসনিক এবং নির্বাহী ক্ষমতায় রূপান্তরিত হয়ে গেছে। এছাড়া স্থানীয় প্রশাসন এবং পুলিশের ওপর সংসদ সদস্যদের একচ্ছত্র নিয়ন্ত্রণ থাকে বলে বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads