• রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads

শেষ পৃষ্ঠা

কাদেরের পাল্টা প্রশ্ন

বিএনপি কে চালায়

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৬ এপ্রিল ২০১৮

‘আওয়ামী লীগ নয়, অন্য কেউ দেশ চালাচ্ছে’ বলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সন্দেহের জবাবে দলটির প্রতি পাল্টা প্রশ্ন ছুড়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপি নামক দলটা কে চালায়? দেশে থেকে কেউ চালায় না বিদেশ থেকে চালায়? এই প্রশ্নের জবাব দিন? 

বৃহস্পতিবার বিকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশে নির্বাচনী অফিসে যুব ও ক্রীড়া উপকমিটির সভায় এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

একই দিন দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, গণতন্ত্রের কথা বলে সরকার অগণতান্ত্রিক আচরণ করছে। একদলীয় শাসন চাপিয়ে দিচ্ছে। আইনের লোকেরা হুকুম দেয় এটা করতে হবে, ওটা করতে হবে। এতে সন্দেহ হয় যে একটি রাজনৈতিক দল হিসেবে কি আওয়ামী লীগ দেশ চালাচ্ছে? না অন্য কেউ দেশ চালাচ্ছে?

বিএনপি মহাসচিবকে উদ্দেশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা তো একেকজন একেক সময় একেক কথা বলেন। এক দলে এত কথা কেন? একই দলের এক অঙ্গে এত রূপ কেন? এটা তো বুঝতে পারি না।

লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ইঙ্গিত করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, আপনাদের দল কে চালায়? টেমস নদীর পাড় থেকে কে সুতা টানে? কীভাবে চলে? পার্টি কি দেশের কেউ চালায়, না বিদেশ থেকে চালায়- এই প্রশ্নের জবাব দিন।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, আমরা একটা বৈধ সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ চালাচ্ছি। এখন উনি (ফখরুল) এর মধ্যে কোন অজানা শক্তির আবিষ্কার করলেন? সেই শক্তিটা কে? আমরা জানতে চাই।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে কাদের আরো বলেন, আপনারা অশান্তি অস্থিরতা সৃষ্টির কত পাঁয়তারা করলেন, কিন্তু দেশে এখনো শান্তিতে আছে। দেশে কোনো অস্থিরতা নেই। এশিয়ার অনেক দেশের চেয়ে আমাদের দেশের পরিস্থিতি অনেক বেশি স্থিতিশীল। আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে কোনো একটি শক্তি দেশে অরাজকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে উল্লেখ করে তিনি এজন্য সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান।

এ ছাড়া একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রথমবারের মতো ভোটার হওয়া ও নারীদের প্রতি দৃষ্টি রেখে দলীয় কাজ করারও নির্দেশনা দেন ওবায়দুল কাদের। আর উপকমিটির পদ ব্যবহার করে পোস্টার, ফেস্টুন, বিলবোর্ডের মাধ্যমে কেউ যাতে নির্বাচনী এলাকায় ডিস্টার্ব না করে সে বিষয়েও সতর্ক করেন তিনি। যুব ও ক্রীড়া উপকমিটির চেয়ারম্যান মোজাফফর হোসেন পল্টুর সভাপতিত্বে এতে আরো উপস্থিত ছিলেন সদস্য সচিব হারুনুর রশীদ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads