• রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads

জীবন ধারা

পুরান ঢাকায় বিশ টাকার খিচুড়ি!

  • প্রকাশিত ০৬ মার্চ ২০১৮

কয়েক দিন আগে চকবাজারে গিয়েছিলাম কাজে। কাজ শেষ করতে করতে দুপুর গড়িয়ে এলো। পেটে প্রচণ্ড ক্ষুধা। পকেটে সব মিলিয়ে ৩০ টাকা আছে। এত অল্প টাকায় তো দুপুরের খাওয়া হবে না। আবুল হাসানাত রোড ধরে হাঁটছিলাম। হঠাৎ ছোট একটা দোকানের সামনের সাদা কাগজে লেখা নোটিশে চোখ আটকে গেল। ‘ভর্তা খিচুড়ি ২০ টাকা’। ২০ টাকায় খিচুড়ি কী করে সম্ভব! খেতে না জানি কেমন হয়! সব ভাবনা মাথা থেকে সরিয়ে ঢুকে পড়লাম নামবিহীন দোকানটিতে।

ছোট একটা দোকান। একসঙ্গে সর্বোচ্চ ছয়জন বসা যায়। চারজন বসে খাচ্ছে। আমিও একটা খিচুড়ির অর্ডার দিয়ে বসলাম। খানিক বাদেই খাবার চলে এলো। ছয় রকমের ভর্তায় সাজানো প্লেট দেখেই মন নিমিষেই ফুল। খিচুড়ি আর ভর্তার পরিমাণ দেখে দামের ব্যাপারটা নিশ্চিত হলাম আরেকবার। দোকানি জানালেন একটা খুদের (চালের ভাঙা অংশ) খিচুড়ি। স্বাদে অতুলনীয় খুদের এই প্যাকেজের দাম ২০ টাকা। সঙ্গে মিলবে শুঁটকি, কালোজিরা, সরিষা, মরিচ আর ডাল ভর্তা। চাইলে পার্সেল করেও নেওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে আরো পাঁচ টাকা গুনতে হবে। অর্থাৎ পার্সেল ২৫ টাকা। কথা হলো দোকানির সঙ্গে। তিনি জানালেন প্রতিদিন সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত দোকান খোলা থাকে। পাঁচ পদের ভর্তাসহ খিচুড়ির দাম ২০ টাকা, ডিম খিচুড়ি ৩৫ টাকা আর মুরগি খিচুড়ি ৫০ টাকা।

বেশ ভালোই চলছে খুদের খিচুড়ি। অনেকেই খেয়ে সঙ্গে করে নিয়েও যান। কোনো ব্যানার বা নামফলক না থাকার কারণ দোকানিকে জিজ্ঞেস করায় তিনি হাসিমুখে বললেন, ‘আপনারাই আমার ব্যানার-পোস্টার। আমার খাবার ভালো লাগলে আপনারাই সবাইরেই কইবেন।’

 

লেখকঃ ইশতিয়াক আবীর

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads