• বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
আজ থেকে তেজগাঁওয়ে সড়ক দখলমুক্তের ঘোষণা

তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকার সড়কগুলো দখলমুক্ত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা।

সংগৃহীত ছবি

মহানগর

আজ থেকে তেজগাঁওয়ে সড়ক দখলমুক্তের ঘোষণা

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

আজ সোমবার থেকে তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকার সড়কগুলো দখলমুক্ত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা। গতকাল রোববার দুপুরে তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকায় বেদখল হওয়া সড়কগুলো পরিদর্শনে এসে তিনি সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন।

প্যানেল মেয়র বলেন, ‘ট্রাকস্ট্যান্ড ইউনিয়নের মালিক ও শ্রমিকরা দখলমুক্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। শুধু এই এলাকা নয়, জনগণের দুর্ভোগ এড়াতে ঢাকার সবগুলো সড়ক দখলমুক্ত রাখব। এজন্য মনিটরিংয়ের মাধ্যমে ডিএনসিসির সংশ্লিষ্টরা সর্বাত্মক কাজ করে যাচ্ছেন।’ এর আগে তিনি ওই এলাকার বিভিন্ন সড়ক সরেজমিন ঘুরে রাস্তার ওপর থাকা ট্রাকগুলো সরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। একই সঙ্গে ওইসব স্থানে যাতে আর কোনো সময় ট্রাকস্ট্যান্ড করতে না পারে সেজন্য ট্রাক শ্রমিক ও মালিক সমিতির সদস্যদের সতর্কতামূলক নির্দেশনা দেন।

জামাল মোস্তফা বলেন, ‘ডিএনসিসির প্রয়াত মেয়র আনিস ভাইয়ের (আনিসুল হক) যে লক্ষ্য ছিল যানজট ও দুর্ভোগমুক্ত সুন্দর একটি নগর উপহার দেওয়া- সেটি বাস্তবায়নে আমরা একনিষ্ঠভাবে কাজ করছি।’ তেজগাঁও এলাকার সড়ক দখলমুক্ত রাখতে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ডিএনসিসির নির্বাহী কর্মকর্তা মেজবাউল ইসলামকে মনিটরিংয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ সময় বাংলাদেশ ট্রাক কভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি তালুকদার মো. মনির সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা প্রতিশ্রুতি দিলাম কাল (সোমবার) থেকে সড়কে ট্রাক থাকবে না। যদি থাকে তাহলে সেসব ট্রাকের কাগজপত্র আমরা জব্দ করে পুলিশের সহযোগিতায় প্রয়োজনে রেকারিংয়ে পাঠাব।’

এদিন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পরিবহন সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে প্যানেল মেয়র ও ডিএনসিসির সংশ্লিষ্টদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ডকে বহুতল টার্মিনাল করার দাবি জানান সংগঠনের নেতারা। প্যানেল মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে এ দাবির বিষয়ে আলোচনা করা হবে। তেজগাঁও এলাকায় আনিসুল হকের নামে নির্মিত সড়ক শিগগিরই উদ্বোধন করা হবে বলেও জানান তিনি।

বৈঠকে সম্প্রতি মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাওয়া সড়ক পরিবহন আইনের বিরোধিতা করেন ট্রাক মালিক-শ্রমিকরা। এ বিষয়ে ট্রাক কভার্ড ভ্যান ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি মালিক সমিতির সভাপতি হাজী মকবুল আহমেদ বলেন, ‘ড্রাইভাররা বলেন এই আইন তাদের জন্য অত্যন্ত কঠোর। অনেকেই ট্রাক চালাচ্ছেন না।’ এ সময় ট্রাক মালিক-শ্রমিকদের উদ্দেশে প্যানেল মেয়র বলেন, ‘ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে আমার নিজের কয়েকটি বাস রয়েছে। আমার জীবিকাও ড্রাইভারদের ওপর নির্ভরশীল। তবে নতুন এই আইনটিতে ড্রাইভারদের জন্য শিক্ষণীয় অনেক কিছুই রয়েছে।’ সভায় তিনি সবাইকে আইন মেনে ট্রাক চালানোর নির্দেশনা দেন।

২০১৫ সালের ডিসেম্বরে ডিএনসিসির তদানীন্তন মেয়র আনিসুল হক তেজগাঁও সড়কটি ট্রাকের দখলমুক্ত করতে গিয়ে শ্রমিকদের ক্ষোভের মুখে পড়েন। কিন্তু তিনি অনড় থাকায় ট্রাকস্ট্যান্ড সংলগ্ন সড়কটি দখলমুক্ত করা হয়। ২০১৭ সালে সাতরাস্তা থেকে রেলক্রসিং পর্যন্ত সড়কের উন্নয়ন করে বিভাজকে লাগানো হয় গাছ। কিন্তু গত বছরের ৩০ নভেম্বর আনিসুল হকের মৃত্যু হলে ডিএনসিসির শিথিলতার সুযোগ নিয়ে আবারো ট্রাকস্ট্যান্ড সংলগ্ন সড়কগুলোর বিশাল অংশ দখল করে ট্রাক রাখার প্রবণতা শুরু হয়।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads