• শনিবার, ২৫ মে ২০১৯, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
হেলমেটের বদলে টুপি

ছবি : সংগৃহীত

মহানগর

হেলমেটের বদলে টুপি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৮ এপ্রিল ২০১৯

রাজধানীর রাস্তায় শৃঙ্খলা ফেরাতে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ নানা কর্মসূচি পালন করছে। এ ছাড়া মোটরবাইক চালক-আরোহীদের হেলমেট ব্যবহারে উৎসাহিত করা হচ্ছে। হেলমেট ব্যবহার না করায় প্রতিনিয়ত মামলা ও জরিমানা করা হচ্ছে। তবে মামলা এড়াতে বাইকচালকরা আরোহীদের মাথায় তুলে দিচ্ছেন হেলমেটসদৃশ্য প্লাস্টিকের টুপি।

এদিকে রাজধানীতে বেশ কিছুদিন ধরে রাইডশেয়ারিং পাঠাও, উবার, সহজ, ওভাই, পিকমিসহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান মোটারবাইক সার্ভিস দিয়ে আসছে। এসব মোটরবাইকের সঙ্গে সাধারণত দুটি হেলমেট থাকার কথা। কিন্তু বেশিরভাগ মোটরবাইকে দেখা যায় একটি হেলমেট ও একটি প্লাস্টিকের টুপি। এসব টুপিই হেলমেট হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। রাজধানীর একাধিক ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আগে হেলমেটই ঠিকভাবে পরতেন না বাইক চালকরা। ট্রাফিক অভিযানের পর কিছুটা সচেতন হয়েছে তারা। তবে টুপি টাইপের হেলমেট প্রসঙ্গে তারা বলছেন এগুলোও হেলমেট হিসেবেই বিক্রি হয়। দুর্ঘটনায় পতিত হলে হেলমেট যে নিরাপত্তা দেয়, তা এসব হালকা হেলমেটে সম্ভব না।

বিআরটিএ’র তথ্যানুযায়ী, ২০১৮ সাল পর্যন্ত ঢাকায় মোটরসাইকেল নিবন্ধিত হয়েছে মোট ৬ লাখ ১৬ হাজার ৬৪১টি। গত বছরই হয়েছে ১ লাখ ৪ হাজার ৫৪টি। সংশ্লিষ্টদের মতে, অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিংয়ের কারণেই মোটরসাইকেলের সংখ্যা বাড়ছে।

বিশেষজ্ঞরা জানান, ভারতে মোটরসাইকেল আরোহীদের আইএসআই মানের হেলমেট পরতে হয়। ইউরোপীয় দেশগুলোয় ‘ইসিই’ এবং যুক্তরাষ্ট্রে ‘ডট’ মানের হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক। মোটরযান আইনে যাত্রীদের জন্য হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক হলেও সেটার মান কী হবে, তা নিয়ে কিছু বলা নেই। জননিরাপত্তার বিষয় থাকায় ২০১৮-২১ মেয়াদের আমদানি নীতিতে বন্দরে বাধ্যতামূলক মান পরীক্ষার ৭৯টি পণ্যের একটি হচ্ছে হেলমেট।

অন্যদিকে বাইক চালকরা জানান, পুলিশি ঝামেলা এড়াতেই মূলত আরোহীর জন্য আরেকটি হেলমেট রাখা হয়। ওইসব হেলমেট খুবই হালকা এবং মাথার নিরাপত্তার জন্য ঝুঁকি এটা জেনেও কেন এগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে, এমন প্রশ্নের জবাবে তাদের বক্তব্য, অল্পদামে পাওয়া যায় তাই এগুলো ব্যবহার করছেন তারা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads