• রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০২০, ২২ চৈত্র ১৪২৬
ads
যেন করোনা বোমার ওপর রাজধানী ঢাকা!

ছবি: বাংলাদেশের খবর

মহানগর

যেন করোনা বোমার ওপর রাজধানী ঢাকা!

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৪ মার্চ ২০২০

দেশে এ পর্যন্ত মোট ৩৩ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১৫ জনই রাজধানী ঢাকায় শনাক্ত হয়েছে। আগামী দিনগুলোতে এই রোগী আরো বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। এমন পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে, যেন করোনা বোমার ওপরে অবস্থান করছে রাজধানী ঢাকা। পুরো দেশেও ধীরে ধীরে এই রোগটি ছড়িয়ে পড়ছে।

রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, ব্যক্তি উদ্যোগে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। জনসমাগম এড়িয়ে চলার মাধ্যমে মানুষ নিজেকে করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা করতে পারবে। সূত্র জানায়, রাজধানীর টোলারবাগ এলাকায় এক বয়স্ক ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এর ঠিক পরদিনই পাশের বাড়িতেই মৃত্যুবরণ করেছেন আরেক ব্যক্তি। এ নিয়ে ঐ এলাকার মানুষের মধ্যে সংশয়ের সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ রাজধানীর মিরপুর এবং টোলারবাগ এলাকায় বেশ কিছু বাড়ি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়ায় লকডাউন করেছে অর্থাৎ কাউকে বের হতে দিচ্ছে না।

ডা. মীরজাদী সেব্রিনা জানিয়েছেন, আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকা শহরের ১৫ জন, মাদারীপুরের ১০ জন, নারায়ণগঞ্জের ৩ জন, গাইবান্ধায় ২ জন, কুমিল্লা, গাজীপুর এবং চুয়াডাঙ্গায় একজন করে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে একজন চিকিৎসক, একজন নার্স এবং একজন স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন।

করোনা ভাইরাস আক্রান্তদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে চিকিৎসক আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটছে। এ নিয়ে চিকিৎসক সমাজ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এটা নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেছেন, চিকিৎসকের এখন তেমন পিপিইর দরকার নেই।

চিকিৎসকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলছেন, দায়িত্বশীল পদে থেকে কেউ দায়িত্বজ্ঞানহীন কথা বললে তা মেনে নেওয়া যায় না। দিনে দিনে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার মধ্যেই মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছেন, সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে ২৭ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল। এ সময় গণপরিবহন চলাচল সীমিত থাকবে। জনসাধারণকে যত সম্ভব গণপরিবহন পরিহারে পরামর্শ দেওয়া যাচ্ছে। যারা জরুরি প্রয়োজনে গণপরিবহন ব্যবহার করবেন তাদেরকে অবশ্যই করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হওয়া থেকে মুক্ত থাকার জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। গাড়িচালক এবং সহকারীদের অবশ্যই মাস্ক ও গ্লাভসসহ পর্যাপ্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এর আগে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আগামী ২৬ মার্চের সরকারি ছুটি এবং ২৭ থেকে ২৮ মার্চের সাপ্তাহিক ছুটির সঙ্গে ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। ৩ ও ৪ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটির দিন এ বন্ধের সঙ্গে সংযুক্ত থাকবে। কাঁচাবাজার, খাবার, ওষুধের দোকান, হাসপাতাল, জরুরি সেবার জন্য এ ব্যবস্থা প্রযোজ্য হবে না।

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকার যখন বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে ঠিক সেই সময়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) রিপোর্ট অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসে সারা বিশ্বে এ পর্যন্ত ২ লাখ ৯২ হাজার ১৪২ জন আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ২৬ হাজার ৬৯ জন। মোট মারা গেছেন ১২,৭৮৪ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ১৬শ জন। এর মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ায় সর্বমোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১২৫৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ২৭৮ জন।

সর্বমোট মৃত্যুর সংখ্যা ৪৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সাত জন মারা গেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads