• রবিবার, ৭ জুন ২০২০, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
চট্টগ্রামে একদিনেই ৬৫ জনের করোনা শনাক্ত, ২৯ ভবন লকডাউন

ফাইল ছবি

মহানগর

চট্টগ্রামে একদিনেই ৬৫ জনের করোনা শনাক্ত, ২৯ ভবন লকডাউন

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১২ মে ২০২০

চট্টগ্রামে একদিনেই ৬৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের পর ২৯ ভবন লকডাউন করা হয়েছে।

জানা গেছে, চট্টগ্রামে ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি, সিভাসু, চমেক ও কক্সবাজারে ৩৯৫ নমুনা পরীক্ষা করে চট্টগ্রামের আরও ৬৫ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্তে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৩৩ জনে। নতুন করে ৬৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্তের পর ২৯ টি ভবন লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি আজ দুপুরে জানান সোমবার রাত পর্যন্ত আইটিআইডিতে ২৩৪ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তার মধ্যে ফলাফল পজিটিভ আসে ৩৯ জনের। এর মধ্যে ৩১ জন চট্টগ্রামের, ৭ জন নোয়াখালী জেলার ও একজন ফেনীর। চট্টগ্রামে শনাক্ত ৩১ জনের মধ্যে ১৭ জন নগরের বাসিন্দা। ১৪ জন বিভিন্ন উপজেলার।

বিআইটিআইডিতে শনাক্ত চট্টগ্রামের ৩১ করোনা রোগীর মধ্যে নগরের গ্রীনভিউ সোসাইটির ১ জন, কর্নেলহাটের ১ জন, নোয়াপাড়া পাহাড়তলীর ১ জন, বাঁচা মিয়া রোডের ১ জন, পশ্চিম বাঘঘোনা, লালখান বাজারের ১ জন, নয়াবাজার মৌসুমি আবাসিকের ১ জন, আকবরশাহ’র ১ জন, চকবাজারের ১ জন, পশ্চিম নাসিরাবাদের ১ জন, পাঁচলাইশের ১ জন, ফিল্ড হাসপাতালের ১ জন, দামপাড়া পুলিশ লাইনের ১ জন, নন্দনকানন ১ জন, ছোটপুল আগ্রাবাদের ১ জন, আগ্রাবাদের ২ জন ও চমেক হাসপাতালের ১ জন রয়েছেন।

এছাড়া বিআইটিআইডি নতুন শনাক্তদের মধ্যে সাতকানিয়ার ৩ জন, পটিয়ার ১১ রয়েছেন। পটিয়ার ১১ জনের মধ্যে কমল মুন্সীরহাটের ৯ জন, কাগজীপাড়ার ১ জন ও পটিয়া পৌরসভার ১ আছেন।

এদিকে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটির (সিভাসু) ল্যাবে ৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৬ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম জেলায় ১৮, ফেনী জেলায় ১ ও নোয়াখালী জেলায় ৭জন।

চট্টগ্রামের ১৮টি পজিটিভের মধ্যে নগরের ১১ জন রয়েছেন। এর মধ্যে কাজীর দেউড়ির ১ জন, লালদিঘির পাড়ের ১ জন, কদমতলীর ২ জন, হালিশহরের ২ জন, ফিরিঙ্গিবাজারের ১ জন, পতেঙ্গার ১ জন, টেরীবাজারের ১ জন, এয়ারপোর্ট রোডের ১ জন, পশ্চিম গলি চকবাজারের ১ জন রয়েছেন। এছাড়া সাতকানিয়া উপজেলায় ২ জন, রাঙ্গুনিয়ার ২ জন, সীতাকুন্ডের ১ জন ও হাটহাজারীর ২ রয়েছেন।

অন্যদিকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চট্টগ্রাম জেলার ১২ টি নমুনা পরীক্ষা করে একটি পজিটিভ এসেছে। তিনি লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ স্টেশন এলাকার বাসিন্দা।

এ ছাড়া চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫৬ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে সোমবার। এরমধ্যে চট্টগ্রামে ১৫ টি পজিটিভ এসেছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে চট্টগ্রাম নগরের ১৩ জন, পটিয়ার দক্ষিণ ভূর্ষি কেচিয়াপাড়ায় ৪৫ বছর বয়সের পুরুষ ও সীতাকুন্ডের একজন রয়েছেন।

নগরে নতুন আক্রান্তদের মধ্যে রাহাত্তারপুল এলাকার ২ জন, বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমির (বিএমএ) দুইজন, বাদুরতলা এলাকার ১ জন, পতেঙ্গা ১ জন, বায়েজিদ ১ জন, ব্যাপারী পাড়া ১ জন, হাজারী গলি ২ জন, ডিসি অফিস ১ জন, সাকেরপুলের ১ জন, ফ্রিপোর্ট এলাকার ১ জন রয়েছেন।
ডিসি অফিসের আক্রান্ত ব্যক্তি আগে জেলা নাজির ছিলেন। এখন তিনি রেকর্ড কিপার পদে কাজ করছেন।

এদিকে চট্টগ্রামে ৬৫ জন করোনা রোগীর মধ্যে ৪১ জনই মহানগর এলাকার। এ ৪১ জন হলেন বাকলিয়া, কোতোয়ালি, ইপিজেড, পতেঙ্গা, বায়েজিদ, হালিশহর, ডবলমুরিং, বন্দর, চকবাজার, পাঁচলাইশ, আকবরশাহ, খুলশী ও পাহাড়তলীর বাসিন্দা। এসব এলাকার ২৯ টি ভবন লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন।

আজ সকালে সেনাবাহিনীকে সাথে নিয়ে ভবনগুলো লকডাউন করে দেয় নগর পুলিশের বিশেষ শাখার (সিটিএসবি) একটি দল। এ নিয়ে নগরীর প্রায় ৪শ’র বেশি ভবন ও কাঁচাঘর লকডাউন করা হয়েছে।

সিটিএসবির উপ-কমিশনার আব্দুল ওয়ারিশ লকডাউনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ সর্বক্ষণ ২৯ টি ভবন নজরদারিতে রেখেছে। এ ২৯টি ভবন থেকে আগামি ১৪ দিন কেউ বেরও হতে পারবে না। আবার কেউ ভবনে প্রবেশও করতে পারবে না।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads