• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
BK

বৈশাখে ফ্যাশন হাউজের নতুন পোশাক

চন্দন কুটির

বাংলা নববর্ষের আর মাত্র দিন পাঁচেক বাকি। মঙ্গল শোভাযাত্রা আর ঢাক-ঢোল বাজিয়ে বৈশাখ বরণে প্রস্তুত বাঙালি। উৎসবের আমেজ দেখা গেছে ফ্যাশন হাউজগুলোতেও। শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতাদের আনাগোনায় এরই মধ্যে বেশ জমে উঠেছে বৈশাখী কেনাকাটা। মার্কেট ঘুরে তেমনই কিছু ফ্যাশন হাউজের বৈশাখী আয়োজনের খবর জানাচ্ছেন মনিরা তাবাসসুম

 

নন্দন কুটির

বাংলা নববর্ষকে সামনে রেখে নন্দন কুটির তাদের পোশাকের বিশাল সম্ভার নিয়ে প্রস্তুত। তানিয়া তোফায়েলের ডিজাইন করা পোশাকগুলোতে রাখা হয়েছে বৈশাখী আমেজ। লাল, সাদা ছাড়াও কমলা, হলুদ ইত্যাদি রঙের ব্যবহার দেখা গেছে ওয়ান পিস কামিজগুলোতে। কামিজগুলোর সঙ্গে মিলিয়ে এখানে পেয়ে যাবেন বিভিন্ন রঙের ঢোল সালোয়ার, স্কার্ট পালাজোসহ টাইডাইয়ের ওড়নাও। ওয়ান পিসগুলো কিনতে পারবেন ১ হাজার ৪৫০ থেকে ১ হাজার ৬৫০ টাকার মধ্যে। ঢোল সালোয়ারের দাম পড়বে ৫৫০ টাকা।  আপনি চাইলে অনলাইনেও কিনতে এসব পোশাক।

কাপড়-ই-বাংলা

ফ্যাশন হাউজ কাপড়-ই-বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ক্রেতাদের জন্য এনেছে শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, ছেলেদের পাঞ্জাবি। বড়দের পাশাপাশি বাচ্চাদের জন্যও রয়েছে ওয়ান-পিস, থ্রি-পিস, পাঞ্জাবি। ম্যানেজার জুয়েল বিশ্বাস জানান, কাপড়-ই-বাংলা শুধুমাত্র দেশীয় কাপড় ও উপকরণ ব্যবহার করে পোশাক তৈরি করে থাকে। এবারো গ্রীষ্মের দাবদাহকে মাথায় রেখে পোশাকের ডিজাইন করা হয়েছে। ছেলেদের পাঞ্জাবি ৯০০ থেকে ১ হাজার ১৯০ টাকার মধ্যেই পাওয়া যাবে। ছোটদের পাঞ্জাবির দাম পড়বে ৫৫০ থেকে ৮৫০ টাকা। মেয়েদের ওয়ান-পিস ও থ্রি-পিসের দাম নির্ধারিত হয়েছে যথাক্রমে ৯৫০ থেকে ১ হাজার ৪৫০ ও ১ হাজার ৮৫০ থেকে ২ হাজার ৪৫০ টাকা। শিশুদের জন্যও রয়েছে ভিন্ন ডিজাইন ও কাটিংয়ের ওয়ান-পিস ও থ্রি-পিস। দামও রয়েছে হাতের নাগালেই। ৫৫০ থেকে শুরু করে ১ হাজার ৪৫০ টাকার মধ্যেই পাওয়া যাবে পোশাকগুলো।

দেশীয়া

দেশীয়ার মেট্রো শপিংমল, আজিজ সুপার মার্কেট এবং সাভারের শোরুমগুলোতে পাওয়া যাচ্ছে বৈশাখী আয়োজনের নতুন পোশাকগুলো। হলুদ, কমলা, নীলসহ উৎসবের আমেজকে ধরে রাখতে ব্যবহার করা হয়েছে উজ্জ্বল সব রঙ। ওয়ান-পিস ও থ্রি-পিস পাওয়া যাবে ৯০০ থেকে ২ হাজার ৩০০ টাকার মধ্যে।

লোকজ

ছেলেদের জন্য বৈশাখী কালেকশনে লোকজ এনেছে পাঞ্জাবি। পোশাকের মেটেরিয়াল হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে ফ্যান্সি কটন, বিসকসসহ পিওর সুতি কাপড়। লোকজের পাঞ্জাবি পাওয়া যাবে ১ হাজার ২৫০ থেকে ১ হাজার ৪৯০ টাকার মধ্যে।

গাঁও-গেরাম

গাঁও-গেরামের বৈশাখী পোশাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে হলুদ রঙ।

ঐশী

বাংলা বর্ষবরণের এ উৎসবকে আরো আনন্দময় করে তোলে নতুন পোশাক। তাই এই নববর্ষে ক্রেতাদের জন্য ঐশী নিয়ে এসেছে নতুন বৈশাখী পোশাক। বৈশাখের বিভিন্ন মোটিভ ও রঙের ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে পোশাকগুলো। ঐশীতে পাওয়া যাবে বাচ্চাদের পোশাক, কুর্তা এবং ছেলেদের পাঞ্জাবি।

বিসর্গ

শুধু পোশাকেই কি বৈশাখের সাজ পূর্ণ হয়। সাজে পূর্ণতা দেয় গহনা। ফ্যাশন হাউজ বিসর্গে তাই পোশাকের পাশাপাশি রয়েছে নানা গহনার বিশাল সম্ভার। এখানে পাওয়া যাবে কানের দুল, আংটি, গলার মালাসহ বিভিন্ন ডিজাইনের চুড়ি ও হাতের বালা।

অতএব, বৈশাখে নিজেকে সুন্দর করে সাজিয়ে তুলতে আজই বেরিয়ে পড়তে পারেন। শোরুমগুলোতে ঘুরে বেছে নিন আপনার পছন্দের পোশাকটি। পরিবার ও প্রিয়জনদের নিয়ে মেতে উঠুন নববর্ষের উৎসবে।