• মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ২৩ সফর ১৪৩৯
BK
দুই যুবলীগ নেতা হত্যা

এমপি রানার দুই দিনের রিমান্ড

সংরক্ষিত ছবি

দুই যুবলীগ নেতা হত্যা মামলায় টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সরকারদলীয় এমপি আমানুর রহমান খান রানাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওসি অশোক কুমার সিংহের আবেদনে বৃহস্পতিবার বিকালে টাঙ্গাইলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সদর আমলী আদালতের বিচারক আবদুল্লাহ আল মাসুম এ আদেশ দেন।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বাঘিল ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা শামীম ও মামুন ২০১২ সালের ১৬ জুলাই তাদের বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলযোগে জেলা শহরে এসে নিখোঁজ হন। পরদিন শামীমের মা আছিয়া খাতুন এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল সদর থানায় একটি জিডি করেন। এক বছর পর ২০১৩ সালের ৯ জুলাই নিখোঁজ মামুনের বাবা টাঙ্গাইল আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে তদন্ত করে পুলিশ ওই বছর ২১ সেপ্টেম্বর মামলাটি তালিকাভুক্ত করে।

এই মামলায় গ্রেফতার হওয়া শহরের বিশ্বাস বেতকা এলাকার খন্দকার জাহিদ ২০১৭ সালের ১১ মার্চ, শাহাদত হোসেন ১৬ মার্চ এবং হিরন মিয়া ২৭ এপ্রিল ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন। এতে তারা উল্লেখ করেন, এমপি রানার দিকনির্দেশনায় শামীম ও মামুনকে হত্যা করে লাশ নদীতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়।

রুবেল হত্যাচেষ্টায় জামিন

এদিকে ঘাটাইল জিবিজি কলেজের ভিপি ছাত্রলীগ নেতা আবু সাঈদ রুবেলকে হত্যাচেষ্টার মামলায় এমপি রানার জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। দুপুরে টাঙ্গাইল সদর আমলী আদালতের বিচারক জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম গোলাম কিবরিয়া এ জামিন আদেশ দেন।

৩ মে এই মামলায় এমপি রানাকে গ্রেফতারের জন্য আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক শামছুল ইসলাম। পরে আদালত বৃহস্পতিবার শুনানির দিন ধার্য করেন। ২০১৬ সালের ৯ নভেম্বর রাতে রুবেলকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে দুর্বৃত্তরা। এ হামলায় তিনি পঙ্গু হয়ে যান।