• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
BK
ডিআরইউতে শিল্পমন্ত্রী

ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার হচ্ছেন মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা

ছবি- বাংলাদেশের খবর

মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থা আরো আধুনিক এবং এখান থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। গতকাল শুক্রবার বাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘পিএসসি ও জেএসসি’ কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আমু বলেন, দেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে কুদরত-ই-খুদা শিক্ষা কমিশন বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে মাদ্রাসা শিক্ষকরা এ কমিশনের বিরোধিতা শুরু করেন। তাদের ধারণা ছিল এই কমিশন বাস্তবায়িত হলে মাদ্রাসা শিক্ষা বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু বাস্তবে মাদ্রাসা শিক্ষাব্যবস্থা আরো আধুনিক হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ২০১৭ সালে প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষায় সাফল্যের জন্য ৬৫ ডিআরইউ সদস্য সন্তানকে বৃত্তি দেওয়া হয়। এর মধ্যে ৩৪ জন প্রাথমিক সমাপনী, ৩০ জন জেএসসি এবং একজন কোরআনে হাফেজ। এই কৃতী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ক্রেস্ট, সনদ এবং নগদ অর্থ দেওয়া হয়েছে।

আমির হোসেন আমু বলেন, মাদকাসক্তি ও পাশ্চাত্যের অপসংস্কৃতি থেকে আমাদের সন্তানদের রক্ষা করতে হবে। আজকের ছোট শিক্ষার্থীরা সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে আগামীতে নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অবদান রাখবে।

বঙ্গবন্ধুই প্রথম ড. কুদরত-ই-খুদা শিক্ষা কমিশন গঠন করেছিলেন জানিয়ে শিল্পমন্ত্রী বলেন, তাঁর মৃত্যুর পর এই কমিশন বাস্তবায়ন বাধাগ্রস্ত হয়। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে এই কমিশন বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেন।

ডিআরইউ সভাপতি সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ঢাকা টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন, উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. ইয়াসমিন আরা লেখা, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি শাবান মাহমুদ।