• শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ১১ মহররম ১৪৪০
BK

বিয়েতে সাদা গাউনের রীতি

বিয়েতে সাদা গাউনের রীতি
ইন্টারনেট

ব্রিটেনের রাজপরিবারের বিয়ে নিয়ে জনগণের কৌতূহলের শেষ নেই। বিয়ের খুটিনাটি সব বিষয় নিয়ে মানুষ জানতে চায়। এর মধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য একটি জিজ্ঞাসা, কনের বিয়ের গাউনের রঙ নিয়ে। রানি ভিক্টোরিয়া থেকে শুরু করে প্রিন্স উইলিয়ামের বিয়েতে এসেছে প্রথাগত অনেক পরিবর্তন, কিন্তু কনের পোশাকের রঙ রয়ে গেছে একই।

সবশেষ গতকাল শনিবার হয়ে গেল প্রিন্স হ্যারি ও মেগান মর্কেলের বিয়ে। এ বিয়েতেও কনেকে দেখা যায় সাদা গাউন পরতে। সাদা রঙের বিয়ের পোশাকের প্রচলন শুরু হয় ১৮৪০ সালে। রয়্যাল চ্যাপেলে বিয়ে হয় রানি ভিক্টোরিয়া ও প্রিন্স অ্যালবার্টের। বিয়ের পোশাক হিসেবে ভিক্টোরিয়াই প্রথম বেছে নেন সাদা রঙের গাউন। সেই থেকে এখনো চালু সাদা পোশাক। সিংহাসনে আরোহণের পরই ভিক্টোরিয়া বিয়ে করেন। এরপর ১৯৪৭ সালের ২০ নভেম্বর ওয়েস্ট মিনস্টারে বিয়ে হয় রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও প্রিন্স ফিলিপের। এ বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন ১০ জন রাজা ও রানিসহ দুই হাজার অতিথি।

প্রিন্স চার্লস ও প্রিন্সেস ডায়ানার বিয়েকে বিশ শতকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিয়ে হিসেবে ধরা হয়। ১৯৮১ সালের ২৯ জুলাই জমকালো এই বিয়ে হয়। বিয়েতে ডায়ানা পরেছিলেন সাদা গাউন। এ বিয়েকে প্রথম নারীবাদী বিয়ে হিসেবে দেখা হয়। কারণ, কনে বিয়ের সময় তার স্বামীর বাধ্য থাকবেন এমন প্রতিজ্ঞা থেকে বিরত ছিলেন। বিশ্বের প্রায় ৭৫ কোটি দর্শক টেলিভিশন পর্দায় দেখেন বর্ণাঢ্য এ বিয়ের অনুষ্ঠান। ওইদিন ব্রিটেনে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা হয়। সিংহাসনের আরেক উত্তরাধিকার প্রিন্স চার্লস ও প্রিন্সেস ডায়ানার বড় ছেলে প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটনের বিয়েও ছিল বেশ জাঁকজমকপূর্ণ। এতেও কনেকে সাদা গাউনে দেখা যায়। এ বিয়েতে ৫০টি দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানসহ ১ হাজার ৯০০ অতিথির উপস্থিত ছিলেন।