• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ১৪ মহররম ১৪৪০
BK

জিনিয়ার দিল্লি জয়

জিনিয়ার দিল্লি জয়
বাংলাদেশের খবর

ফারহানা জিনিয়া। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করে গবেষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন জনস্বাস্থ্য বিভাগে। তার আগে কাজ করেছেন দেশের বিভিন্ন এনজিও এবং কর্পোরেট সেক্টরে। ফ্যাশন ডিজাইন নিয়ে কাজ করাই তার লক্ষ্য। স্বপ্ন পূরণের জন্য বিভিন্ন কোর্সও করেন ফ্যাশন ডিজাইন নিয়ে। ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় উদ্যোক্তা হিসেবে কাজের লক্ষ্যে তার বাসায় স্টুডিও স্থাপন করেন।

জানতে চাইলে জিনিয়া বলেন, ‘সমাজবিজ্ঞান নিয়ে পড়াশুনা করলেও ফ্যাশনের প্রতি একটা ভালোলাগা কাজ করত। সেই ভালো লাগা থেকেই একসময় ভাবনা এলো এই মাধ্যমে কাজ করার। চাকরি ছেড়ে দেই এবং ফ্যাশন ডিজাইন নিয়ে কাজ শুরু করি।’

সম্প্রতি ভারতে দিল্লিতে অনুষ্ঠিত ‘৬ষ্ঠ এশিয়ান ডিজাইনার উইক- ২০১৮’ এ অংশ নিয়েছেন ফারহানা জিনিয়া। ফ্যাশন সচেতনদের নিয়ে জাঁকজমকপূর্ণ এ আসর বসেছিল দিল্লি বিকান হাউজে। জিনিয়া জানান, তিনদিন ব্যাপী এ আয়োজনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অংশ নিয়েছিলেন ৫০ জন তরুণ-তরুণী। তাদের সঙ্গে ছিলেন উদ্যমী ও প্রতিভাবান ফ্যাশন ডিজাইনার ও প্রায় ৩ হাজার জন বিশেষ অতিথি। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, নেপাল, মায়ানমার, কাজাকস্তান ও শ্রীলঙ্কা থেকে আগত ফ্যাশন ডিজাইনাররা তাদের ডিজাইন করা পোশাক উপস্থাপন করেন।

আয়োজনের দ্বিতীয় দিনে তার ডিজাইন করা ৫টি পোশাক প্রদর্শন করা হয়। পোশাকগুলোর মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য ফুটিয়ে তুলেছিলেন। জিনিয়া বলেন, ‘পোশাকগুলো তৈরির ক্ষেত্রে পরিবেশ বান্ধব এবং স্থানীয়ভাবে তৈরি কাপড় ব্যবহার করেছি। দেশীয় কাপড়ের সঙ্গে পশ্চিমা ফ্যাশনের যুগলবন্দী করে তৈরি করেছি।’

পোশাকগুলোর ডিজাইনে দেশীয় নকশী কাঁথার কাজ, রঙ ও তাঁতের ব্যবহার করা হয় উল্লেখ করে জিনিয়া আরো বলেন, ‘উৎসবে আমার পোশাকগুলো অতিথিদের মন কেড়েছে। সবাই এগুলোর প্রশংসা করেছে।’ ভবিষ্যতে ফ্যাশন ডিজাইন নিয়ে আরো বেশি কাজ করে চান জিনিয়া। ফ্যাশন ডিজাইনের মাধ্যমের বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চান এ তরুণী। পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের যারা ফ্যাশন ডিজাইন নিয়ে পড়াশুনো করতে আগ্রহী তাদের সহযোগিতা করতে চান তিনি।