• বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৫ সফর ১৪৩৯
BK

মালির যুবক এখন ফ্রান্সের `স্পাইডারম্যান’  

ভিডিও ভাইরাল
ছবি : সিএনএন

বহুতল ভবনের ব্যালকনিতে ঝুলে থাকা এক শিশুকে উদ্ধার করে ‘স্পাইডারম্যান’ বনে গেছেন ফ্রান্সের এক শরণার্থী ২২ বছর বয়সী মালির যুবক মামুদো গাসামা। শনিবার স্থানীয় সময় রাত আটটার দিকে প্যারিসের ওই ভবনের পাঁচ তলার ব্যালকনিতে অল্প সময়ে উঠে শিশুটিকে উদ্ধার করেন তিনি।

সোমবার সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সাহসী কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ গাসামা ফ্রান্সের নাগরিকত্ব ও গোল্ড মেডেল পেয়েছেন। এছাড়া দেশটির ফায়ার সার্ভিস বাহিনীতে নিযুক্ত হয়েছেন।  

প্যারিসের মেয়র আন্নে হিডালগো রোববার এক টুইটে  গাসামাকে  ‘এইটিনথ’র স্পাইডারম্যান’ বলে অভিহিত করেছেন। নগরীর যে অংশে এই ঘটনাটি ঘটেছে তা ‘এইটিনথ’ নামে পরিচিত। 

শনিবার প্যারিসের উত্তরাঞ্চলীয় এলাকার ওই ভবনের ব্যালকনিতে ঝুলছিল একটি শিশু। ওই সময় ভবনটির নিচে থাকা গাসসামা শিশুটিকে উদ্ধারে খালি হাতে একের পর এক ব্যালকনি টপকে পাঁচতলায় উঠে যান। একই সময় পাশের ফ্ল্যাটের অন্য এক ব্যক্তি শিশুটির হাত ধরে রাখার চেষ্টা করছিলেন। গাসসামা ব্যালকনিতে পৌঁছে শিশুটির আরেক হাত ধরে ফেলেন এবং নিরাপদে তাকে তোলেন।

 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, ভবনটির নিচে থাকা মানুষ ওই সময় গাসামার এই সাহসী ও মহৎ কাজের জন্য উল্লাস করছিলেন। 

ঘটনার সময় শিশুটির বাবা-মা বাড়িতে ছিলেন না। কেন শিশুটিকে বাড়িতে একা রেখে তারা বাইরে গেলেন তা জানতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। ঘটনার সময় শিশুটির মা প্যারিসের বাইরে ছিলেন।

সোমবার গাসামাকে এলিজি প্রাসাদে ডেকে ধন্যবাদ জানান প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ।

প্রেসিডেন্ট সাহসিকতার জন্য তাকে স্বর্ণপদক দেন এবং ফায়ার ব্রিগেডে কাজে যুক্ত হওয়ার কথা বলেন। গাসামা প্রেসিডেন্টকে বলেন, ‘আমি ভাবার জন্য অতটা সময় পাইনি। শিশুটি ঝুলছিলো দেখে রাস্তা অতিক্রম করে আমি উপরে উঠে গেলাম এবং তাকে উদ্ধার করলাম। সৃষ্টিকর্তা আমাকে সাহায্য করেছেন।’

গত বছরই গাসামা শরণার্থী হিসেবে ভূমধ্যসাগরের বিপজ্জনক পথ পাড়ি দিয়ে ইতালি হয়ে ফ্রান্সে আসেন।