• শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৬ সফর ১৪৩৯
BK
শিশু খাদিজা গণধর্ষণ ও হত্যা

১৫ বছর পর চার বন্ধুর মৃত্যুদণ্ড

১৫ বছর পর চার বন্ধুর মৃত্যুদণ্ড
প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জে শিশু খাদিজা আক্তার গণধর্ষণ ও হত্যার ১৫ বছর পর আসামি চার বন্ধুকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার নারায়ণগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. জুয়েল রানা এ আদেশ দেন। তবে রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। তারা সবাই পলাতক রয়েছেন। আদালত রায়ে আসামিদের ফাঁসির দড়িতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলো নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার আলীরটেক এলাকার সুজন, আলামিন, আবুল কালাম ও শাহাদাত। হত্যাকাণ্ডের শিকার খাদিজা আক্তার আলীরটেক এলাকার আলী আকবরের মেয়ে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পিপি রকিবউদ্দিন জানান, ২০০৩ সালের ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সদর উপজেলার আলীরটেক এলাকার আলী আকবরের ১০ বছর বয়সী মেয়ে খাদিজাকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায় একই এলাকার চার যুবক। এরপর থেকে খাদিজা নিখোঁজ থাকে। পরদিন ১৪ জানুয়ারি সকালে বাড়ির পাশে একটি সরিষা ক্ষেত থেকে খাদিজার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় খাদিজার বড় ভাই আনসার আলী বাদী হয়ে সুজন, আলামিন, আবুল কালাম ও শাহাদাতকে আসামি করে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে। ঘটনার পর থেকেই চারজন পলাতক থাকে। পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে পারেনি।

তিনি আরো জানান, মামলায় ১৭ জনের মধ্যে আদালত ৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। নিহতের পরিবার এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে।