• মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ২৩ সফর ১৪৩৯
BK
২০১৭-১৮ অর্থবছর

কুমিল্লায় শতভাগ ভূমিকর আদায়

কুমিল্লায় শতভাগ ভূমিকর আদায়
ছবি : ইন্টারনেট

২০১৭-১৮ অর্থবছরে কুমিল্লায় সাধারণ খাতে ভূমি উন্নয়ন করের পুঞ্জীভূত আদায় শতভাগ ছাড়িয়েছে। জেলার ১৬ উপজেলার ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৩ কোটি ৯৮ লাখ ১৩ হাজার ৬৮২ টাকা। তবে পুঞ্জীভূত আদায় হয়েছে ১৪ কোটি ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৫০৮ টাকা। জেলার তিন উপজেলায় কর আদায়ের হার শতভাগ থেকে কিছুটা কম হলেও ৮টি উপজেলায় শতভাগ এবং বাকিগুলোতে শতভাগের বেশি আদায় হয়েছে। মোট আদায়ের হার ১০০ দশমিক ৪০ ভাগ। এ সময় বকেয়া ভূমি কর ও বকেয়া করের সুদও আদায় হয়েছে।

উপজেলাওয়ারী আয়করের মোট লক্ষ্য ও পুঞ্জীভূত আদায়ের পরিমাণ হচ্ছে, আদর্শ সদরে লক্ষ্য ছিল ২ কোটি ২৩ লাখ ২৭ হাজার ২৫২ টাকা, আদায় হয়েছে ২ কোটি ২২ লাখ ১৩ হাজার ৩৫৬ টাকা। বুড়িচংয়ে লক্ষ্য ছিল ৫৭ লাখ ৮২ হাজার ৮৮১ টাকা, আদায় হয়েছে ৫৭ লাখ ৮২ হাজার ৫৮১ টাকা। ব্রাহ্মণপাড়ায় লক্ষ্য ছিল ২৩ লাখ ১৮ হাজার ৬০৫ টাকা, আদায় হয়েছে ২৩ লাখ ১৮ হাজার  ৬০৫ টাকা । চৌদ্দগ্রামে লক্ষ্য ছিল ১ কোটি ৪৫ লাখ ১৮ হাজার ৯১৭ টাকা, আদায় হয়েছে ১ কোটি ৪৯ লাখ ৪৬ হাজার ৬৪২ টাকা। নাঙ্গলকোটে মোট লক্ষ্য ৬৪ লাখ ২৩ হাজার ৪৩৮ টাকা, আদায় হয়েছে ৬৪ লাখ ২৩ হাজার ৪৩৮ টাকা। লাকসামে লক্ষ্য ছিল ৮৬ লাখ ৪৯ হাজার ৪৪৫ টাকা, আদায় ৮৯ লাখ ৮৩ হাজার ১২৬ টাকা। বরুড়ায় লক্ষ্য ছিল ৯৮ লাখ ২৯ হাজার ৪৯ টাকা, আদায় হয়েছে ৯৮ লাখ ২৯ হাজার ৫৪৯ টাকা। চান্দিনায় লক্ষ্য ছিল ১ কোটি ২২ লাখ ১৫ হাজার ৭০ টাকা, আদায় হয়েছে ১ কোটি ১৮ লাখ ৭৯ হাজার ৩১০ টাকা। দাউদকান্দিতে লক্ষ্য ছিল ১ কোটি ২০ লাখ ১৯ হাজার ৬৪৯ টাকা, আদায় হয়েছে ১ কোটি ২১ লাখ ৪৪ হাজার ৪৭৫ টাকা। দেবীদ্বারে মোট লক্ষ্য ৭৭ লাখ ৬৮ হাজার ৫৪৯ টাকা, আদায় হয়েছে ৭৬ লাখ ৭১ হাজার ৮৫৬ টাকা। মুরাদনগরে লক্ষ্য ছিল ৯৫ লাখ ২২ হাজার ৬০৫ টাকা, আদায় হয়েছে ৯৫ লাখ ২২ হাজার ৬০৫ টাকা। হোমনায় লক্ষ্য ছিল ৫৬ লাখ ৭ হাজার ৬৫১ টাকা, আদায় হয়েছে ৫৬ লাখ ৭ হাজার ৬৫১ টাকা। তিতাসে লক্ষ্য ছিল ৩১ লাখ ৬ হাজার ৫৫৭ টাকা, আদায় হয়েছে ৩১ লাখ ৬ হাজার ৫৫৭ টাকা। মনোহরগঞ্জে মোট লক্ষ্য ২২ লাখ ৩০ হাজার ২৬৩ টাকা, আদায় হয়েছে ২২ লাখ ৩০ হাজার ২৬৩ টাকা। সদর দক্ষিণে লক্ষ্য ছিল ১ কোটি ৫৪ লাখ ৮৮ হাজার ৯১৭ টাকা, আদায় হয়েছে ১ কোটি ৫৬ লাখ ২১ হাজার ৪৮৮ টাকা।

ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের ব্যাপারে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, এ ব্যাপারে বিভাগীয় কমিশনারের নির্দেশনা অনুসারে আমরা জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ে নিযুক্ত সংশ্লিষ্টদের নিয়ে সভা করেছি। করদাতাদের কর প্রদানে উদ্বুদ্ধ করেছি। কর আদায়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও করদাতাদের কর প্রদানে আগ্রহ কর আদায়ে লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছা সম্ভব হয়েছে। তিনি যথাসময়ে কর প্রদানের জন্য ভূমি মালিকদের ধন্যবাদ জানান।