• মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
BK

রূপসা পাওয়ার প্লান্টে ৫০১.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিবে এডিবি

রূপসা পাওয়ার প্লান্টে ৫০১.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিবে এডিবি
ছবি : ইন্টারনেট

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) রূপসা ৮শ’ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট বাস্তবায়নের জন্য বাংলাদেশকে ৫০১.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা দিবে।

মোট ঋণ সহায়তার মধ্যে ম্যানিলা ভিত্তিক ঋণ সংস্থা দিবে অর্ডিনারি ক্যাপিটাল রির্সোস হিসাবে ৫শ’ মিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং বাকি অর্থ পাওয়া যাবে মঞ্জুরি সহায়তা হিসাবে।

রাজধানীর শেরে-বাংলানগরে এনইসি- সম্মেলন কক্ষে আগামী ২ আগস্ট সরকার ও এডিবি’র মধ্যে এ বিষয়ে একটি ঋন ও মঞ্জুরি চুক্তি স্বাক্ষর হবে।
অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আজম এবং এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ^ স্ব স্ব পক্ষে ঋণ ও মঞ্জুরি চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন। পাশাপাশি এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ এবং নর্থ ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেডের সিইও ইঞ্জিনিয়ার এ এম খোরশেদুল আলমের মধ্যে একটি প্রকল্প চুক্তি স্বাক্ষর হবে।

এডিবি’র বিশেষজ্ঞ আজিজ ইউসুফ এডিবি ও ইআরডি’র তথ্য অনুযায়ি এই ঋণ সহায়তা খুলনায় ৮শ’ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি নির্মানে সয়াহক হবে। অগ্রসরমান অর্থনীতিতে জ্বালানীর ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে রূপসা বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি হবে বাংলাদেশে এ ধরনের প্রথম বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র।

বাংলাদেশে ২০১৭ সালে পিক আওয়ারে বিদ্যুতের চাহিদা ছিল ১০,৪০০ মেগাওয়াট। এ সময়ে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়েছে ৯,৪৭৯ মেগাওয়াট। ২০২০ সালের মধ্যে বিদ্যুতের মোট চাহিদা ১৩,৩০০ মেগাওয়াট এবং ২০২৫ সালের মধ্যে ১৯,৯০০ মেগাওয়াট ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, রূপসা বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে সর্বশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার হবে। তরল বর্জ পরিশোধন এবং রিসাইক্লিং করতে সর্বাধুনিক ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্রক্রিয়া ব্যবহার হবে।