• বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ৯ মহররম ১৪৪০
BK

আবার আলোচনায় সাব্বির

আবার আলোচনায় সাব্বির
ছবি : ইন্টারনেট

নামের সঙ্গে পিঞ্চ হিটার শব্দটি ব্যবহৃত হয়। মানে ২২ গজের উইকেটে ধুন্ধুমার ইনিংস খেলতে অভ্যস্ত তিনি। মাঝে মধ্যে ঝড় বইয়ে দেন ব্যাট হাতে, দেখা মেলে ছক্কা-চারের ফুলঝুরি। তবে মাঠের বাইরেও কম যাননি তিনি। প্রায়ই নেতিবাচক ঘটনার জন্ম দিয়ে উঠে আসেন আলোচনায়। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এখন রয়েছে সুদূর ওয়েস্ট ইন্ডিজে। তবে সেখান থেকেই নতুন করে সমালোচনায় জড়িয়েছেন সাব্বির রহমান রুম্মন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দুই ভক্তকে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ ও হুমকি দিয়েছেন জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার। ফলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের আতশী কাচের নিচে আবারো সাব্বির।

আবারো বলার কারণ রয়েছে একাধিক। গত ডিসেম্বরেই এক কিশোরকে পিটিয়েছিলেন সাব্বির, যার খেসারত ভালোমতো দিতে হয়েছে তাকে। বাদ পড়েন বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে। পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছয় মাস। শুধু তাই নয় সাব্বিরকে গুনতে হয়েছিল মোটা অঙ্কের জরিমানা। বাংলাদেশি অর্থে তা প্রায় ২০ লাখ টাকা।

কিন্তু নিজেকে শোধরাতে পেরেছেন সাব্বির? হয়তো না। ব্যাট হাতে খুব বাজে সময় যাচ্ছে সাব্বিরের। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের কদর্য রূপটা দেখালেন তিনি। গালিগালাজ করলেন ভক্তদের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ওয়ানডের পর সাব্বিরের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছে। ফেসবুক থেকে ভক্তের কাছে সাব্বিরের পাঠানো সেই ক্ষুদেবার্তার স্ক্রিনশট পেয়েছে ক্রিকইনফো। অ্যাকাউন্টটির নাম সাব্বির রহমান রোমান। সংবাদমাধ্যম এবং বিসিবির মেইলে সাব্বিরের এই নাম ব্যবহার করা হয়। এই অ্যাকাউন্টের অনুসারীর সংখ্যা ৯০ হাজারের বেশি। সবার ধারণা, এটাই সাব্বিরের ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট। এখান থেকেই পাঠানো ক্ষুদে বার্তায় গালিগালাজ ও হুমকি দেওয়া হয়েছে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম দুটি ম্যাচে মোট ১৫ রান করেছেন সাব্বির। তার বাজে ফর্ম নিয়ে ফেসবুকে তির্যক মন্তব্য করেন এক ভক্ত। সেই মন্তব্যে আরেক ক্রিকেটপ্রেমী ট্যাগ করেন সাব্বির রহমানকে। তখন সাব্বির তাদের ক্ষুদে বার্তায় বাজে শব্দ ব্যবহার করেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিসিবি সেই ক্ষুদে বার্তা সম্বন্ধে অবহিত হওয়ার পর থেকেই সাব্বিরের অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে বন্ধ।

সাব্বিরের এমন কার্যকলাপে বিসিবি তৎপর। প্রমাণ সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে দেশীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন জানিয়েছেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এবং ভক্তদের সঙ্গে কেমন আচরণ করতে হবে, সে ব্যাপারে খেলোয়াড়দের বিশেষ করে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের বিধি-নিষেধ নির্দিষ্ট করা আছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথাবার্তার সময় তাদের ভীষণ সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যেহেতু বিষয়টা (সাব্বিরের ক্ষুদে বার্তা) প্রকাশ্যে ঘটেছে এবং সেটা বিসিবি জেনেছে, তাই সত্যিই যদি এ ধরনের নিয়মভঙ্গের কিছু ঘটে থাকে তাহলে সেটি শৃঙ্খলা কমিটির কাছে উপস্থাপন করা হবে এবং যথাযথ ব্যবস্থাও নেওয়া হবে।’

দেখা যাক, এবার সাব্বিরের সামনে কী অপেক্ষা করছে আবার।