• বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
BK

দোহার-নবাবগঞ্জ নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসন ১৭৪ (ঢাকা-১)

দোহার-নবাবগঞ্জ নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসন ১৭৪ (ঢাকা-১)
সংরক্ষিত ছবি

বাংলাদেশ প্রজাতন্ত্রের সরকার। জনগণই যেখানে সব ক্ষমতার উৎস। সংবিধানমতে, প্রতি পাঁচ বছর পর জনগণই ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করবে তাদের প্রতিনিধি। যিনি মহান সংসদে দাঁড়িয়ে নির্বাচিত এলাকার জনসাধারণের সমস্যা সমাধানে কথা বলবেন এবং বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। জনগণের নিজস্ব মতামত থাকে, যার সঠিক প্রতিফলন অনেক সময়ই নির্বাচিত প্রতিনিধিদের কাজেকর্মে প্রতিফলিত হয় না। তাই বাংলাদেশের সব মানুষের অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে আমাদের এক পাতাজুড়ে আয়োজন ‘খবরের কাগজে সংসদ’। এখানে রাজনৈতিক বিভিন্ন নেতাকর্মীর পাশাপাশি কথা বলবেন তৃণমূল থেকে শুরু করে সংবিধান প্রণেতাসহ নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের ব্যক্তিরা।

ঢাকা- ১ আসন নিয়ে আমাদের এবারের আয়োজন। সহযোগিতায় সৈয়দ ফয়জুল আল আমীন, গ্রাফিক্স ডিজাইন রাজিব ফেরদৌস আর পরিকল্পনা, গ্রন্থনা ও সম্পাদনা আসিফ সোহান ঢাকা-১ দেশের ১৭৪তম সংসদীয় আসন। আসনটি ঢাকা জেলার দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত। এ আসনে বর্তমান এমপি জাতীয় পার্টির (এরশাদ) অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম। ২০১৪ সালের নির্বাচনে এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন আবদুল মান্নান খান। এবার তার মনোনয়ন নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে। এখানে সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপির সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান এবং বর্তমানে নতুন রাজনৈতিক দল তৃণমূল বিএনপির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা আগের সময়গুলোতে নির্বাচন করেছেন। কিন্তু আগামী নির্বাচনে তিনি ঢাকা-১৭ আসন থেকে অংশগ্রহণ করবেন বলে বাংলাদেশের খবরকে জানান। তিনি আরো বলেন, ঢাকা-১ আসন আমি ছেড়ে দিয়েছি আমার চাচা সালমান এফ রহমানকে। প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাত উন্নয়ন উপদেষ্টা ও বেক্সিমকো গ্রুপের কর্ণধার সালমান এফ রহমানের নাম শোনা গেলেও তিনি এই মুহূর্তে এসব বিষয়ে কিছু বলতে চাননি। এ ছাড়া বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান ও উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার আবু আশফাকের নাম শোনা যাচ্ছে। জাতীয় পার্টি (এরশাদ) আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করলে জাতীয় পার্টির বর্তমান এমপি সালমা ইসলামই জোটের প্রার্থী হতে পারেন। ঢাকা-১ আসনের সম্ভাব্য প্রার্থীদের সঙ্গে কথা বলে আজকের পাতাটি সাজানো হয়েছে।